জাতীয়

ঈদের ছুটির আগেই বেতন-বোনাস দেওয়ার আহ্বান

Advertisements

ঈদুল আজহার ছুটির আগেই শ্রমিকদের বেতন-বোনাস দিতে মালিকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সচিব কে এম আলী আজম।
রবিবার (৪ আগস্ট) সচিবালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থানের সম্মেলন কক্ষে ক্রাইসিস ম্যানেজমেন্ট বিষয়ক কোর কমিটির ৪৪তম সভা শেষে তিনি এ আহ্বান জানান।
প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের সভাপতিত্বে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিমন্ত্রী তার নিজ বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে দেওয়া সভাপতির বক্তৃতায় বলেন, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের পরিদর্শক, শিল্প পুলিশ ও অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, জেলা প্রশাসক সজাগ রয়েছে। তিনি সবার সহযোগিতায় শান্তিপূর্ণভাবে ঈদ উদযাপিত হবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
সচিব কে এম আলী আজম জানান, বিজিএমইএ-এর সিদ্ধান্ত মোতাবেক গাজীপুর এলাকায় ১১ থেকে ১৭ আগস্ট এবং আশুলিয়া, সাভার, হেমায়েতপুর, মানিকগঞ্জ এলাকায় ১১ থেকে ১৮ আগস্ট পর্যন্ত ছুটি থাকবে। তিনি বলেন, সভায় আগামী ৯ ও ১০ আগস্ট শিল্প এলাকায় ব্যাংক খোলা রাখার বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংককে অনুরোধ জানানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে।

তিনি জানান, সময়মতো মালিকরা বেতন-বোনাস পরিশোধ করছেন কিনা তা মনিটরিয়ে সারাদেশের শিল্পঘন এলাকায় কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের কর্মকর্তাদের নিয়ে ৬৪টি টিম কাজ করছে। বেতন-বোনাস নিয়ে কোনও কারখানায় কোনও ধরনের সমস্যার সৃষ্টি হলে মালিক, শ্রমিক ও প্রশাসনের সঙ্গে আলোচনা করে টিমের সদস্যরা বিষয়টির সমাধান করবেন বলে নিদের্শনা দেওয়া হয়েছে বলে সচিব জানান।

সভায় শিল্প পুলিশের মহাপরিচালক আব্দুস সালাম, শ্রম মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. রেজাউল হক, ড. মোল্লা জালাল উদ্দিন, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক শিবনাথ রায়, শ্রম অধিদফতরের মহাপরিচালক এ কে এম মিজানুর, বিজেএমসি-এর চেয়ারম্যান শাহ মোহাম্মদ নাসিম, বিকেএমইএ-এর প্রথম ভাইস প্রেসিডেন্ট মোহামদ মুনসুর আহমেদ, বিজিএমইএ-এর মনসুর খালেদ, জাতীয় শ্রমিকলীগের সভাপতি শুক্কুর মাহমুদ, কার্যকরী সভাপতি ফজলুল হক মন্টুসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতিনিধি, ঢাকা, নারায়ণগঞ্জ, গাজীপুর ও নরসিংদীর জেলা প্রশাসক এবং পুলিশ সুপারের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।