Advertisements

মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ ও জাতিগত নিধনের অভিযোগে অভিযুক্ত মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর কাছে স্পর্শকাতর প্রযুক্তি পণ্য বিক্রি করেছে একটি ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠান। জাতিসংঘের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

তাতমাদৌ হিসেবে পরিচিত মিয়ানমারের সেনাবাহিনী দেশটিতে শত শত কোটি ডলারের বাণিজ্য নিয়ন্ত্রণ করে। জাতিসংঘের ফ্যাক্ট ফাইন্ডিং মিশন ছয় মাস তদন্তের পর জানিয়েছে,যেসব বিদেশি প্রতিষ্ঠান মিয়ানমারের সেনাবাহিনীকে স্পর্শকাতর নৌপ্রযুক্তি পণ্য সরবরাহ করেছে তার মধ্যে ব্রিটিশ প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান ভারিপোস অন্যতম।

মিয়ানমারের ২০১৮-১৯ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটে পণ্য ক্রয়ের এই চুক্তির বিষয়টি প্রকাশ করা হয়েছে। এতে ভারিপোসের কাছ থেকে ৭৪ হাজার ৫০ পাউন্ডের প্রযুক্তি পণ্য কেনার কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম গার্ডিয়ানের কাছে পাঠানো এক বিবৃতি ভারিপোস অবশ্য বলেছে, ‘সিঙ্গাপুরে মধ্যস্থতায় আইন ও নিয়মের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে মিয়ানমার ন্যাভাল হাইড্রোগ্রাফিক সেন্টারের কাছে ২০১৪ ও ২০১৭ সালের মধ্যে জিপিএস পণ্য সরবরাহ করেছে ভারিপোস।’ এসব পণ্য বেসামরিক নৌযানে ব্যবহারের জন্য বলেও জানিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি।

অবশ্য জাতিসংঘের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ‘তাতামাদৌর সঙ্গে যে কোনো বিদেশি প্রতিষ্ঠানের ব্যবসায়িক কার্যক্রম আন্তর্জাতিক মানবাধিকার আইন ও আন্তর্জাতিক মানবিক আইন লঙ্ঘনে ঝুঁকিপূর্ণ কিংবা এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট।’

By Abraham

Translate »