শ্রীলংকার জালে ৭ গোল কিশোরদের – C News
খেলার খবর

শ্রীলংকার জালে ৭ গোল কিশোরদের

সাফ অনূর্ধ্ব-১৫ চ্যাম্পিয়নশিপে ভুটানের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে ৫-২ গোলের জয় তুলে নেয় বাংলাদেশের কিশোররা। কলকাতার কল্যানি স্টেডিয়ামে দারুণ শুরু করে সর্বশেষ আসরের চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশ। এরপর দ্বিতীয় ম্যাচে শ্রীলংকার বিপক্ষে ৭-১ গোলের দুর্দান্ত এক জয় তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ দল। এর মধ্যে আল আমিন রহমান একাই করেছেন পাঁচ গোল।

শক্তি বিবেচনায় শ্রীলংকাকে নিয়ে খুব একটা চিন্তা ছিল না বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ দলের। তবে প্রথম ম্যাচে ভুটানকে ৩-২ গোলে হারায় শ্রীলংকা। শক্তির বিচারে তাই ভুটানের চেয়ে এগিয়ে ছিল লংকান অনূর্ধ্ব-১৫ দল। বাংলাদেশের কিশোরদের কোচ আনোয়ার পারভেজ বাবু তাই আটঘাট বেঁধেই মাঠে নামার কথা জানান। দ্বিতীয় ম্যাচেই যেন শিষ্যদের সেরাটা বের করে আনলেন তিনি।

প্রথম ম্যাচে কলকতায় ছিল খুবই গরম। ম্যাচ জিতলেও খেলতে কষ্ট হয় কিশোরদের। রোববারের ম্যাচে আবহাওয়া ঠাণ্ডা ছিল কিছুটা। কলকাতায় আগের দিন বৃষ্টি হয়েছে। সেই সুবিধা নিয়েই হয়তো উড়ন্ত বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ দলকে দেখা গেল। নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে প্রথম গোল পেতে বাংলাদেশের কিশোরদের লাগে ৩২ মিনিট। আল আমিন রহমান দলের হয়ে প্রথম গোল করেন।

এরপর প্রথমার্ধের ৪১ মিনিটে গোল ব্যবধান দ্বিগুণ করে আনোয়ার পারভেজ বাবুর দল। তিন মিনিট পরেই আবার আল আমিনের গোল। তার গোলে ৩-০ গোলের লিড নিয়ে প্রথমার্ধ শেষ করে বাংলাদেশ ফুটবলের তরুণ তুর্কিরা। এরপর দ্বিতীয়ার্ধের ৪৮ মিনিটে গোল করেন মিরাদ। শ্রীলংকা ম্যাচে বাংলাদেশের জালে একমাত্র গোলটি করে ম্যাচের ৫১ মিনিটে। লংকানদের হয়ে গোল করেন মিরহান।

তবে গোল দিলেও ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি শ্রীলংকা অনূর্ধ্ব-১৫ দল। ম্যাচের ৫৯ মিনিটে আল আমিন রহমান নিজের হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন। এরপর ৬৭ মিনিটে নিজের চতূর্থ গোল করে দলের বড় জয়ের পথ এগিয়ে দেন। ম্যাচের ৭৭ মিনিটে শুরুর মতো শেষ গোলও করেন আল আমিন রহমান। নিজের নামের পাশে চার গোল লেখান এই কিশোর। পরের সময়টা অবশ্য গোল করে জয়ের ব্যবধান আরও বড় করার সুযোগ ছিল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৫ দলের। তবে শ্রীলংকা বাকি সময়টা রুখে দেয় বাংলাদেশ কিশোরদের। বাংলাদেশ দল ভারতের বিপক্ষে খেলবে লীগ পর্বের শেষদিন ২৯ আগস্ট। তার আগে নেপালের বিপক্ষে মঙ্গলবার ম্যাচ আছে তাদের।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *