Advertisements

একে অপরের ব্যাপারে বরাবরই ইতিবাচক লিওনেল মেসি ও ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। প্রায়ই ভিন্ন ভিন্ন সাক্ষাৎকারে নিজেদের খেলার উন্নতিতে অন্যজনের অবদানের কথা স্বীকার করেন অকপটে। মাঠের মধ্যে দুজনের এবং মাঠের বাইরে কোটি সমর্থকের যতো প্রতিদ্বন্দ্বিতাই থাকুক না কেন, ব্যক্তিগত জীবনে খুবই ভালো বন্ধু বর্তমান সময়ের অন্যতম সেরা এ দুই ফুটবলার।

তাদের সম্পর্কের রসায়ন সম্পর্কে আরও একবার ধারণা মিলল বৃহস্পতিবার রাতে, উয়েফা এওয়ার্ড অনুষ্ঠানে। যেখানে ঠিক করা হয়েছে আসন্ন মৌসুমের চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ পর্ব এবং দেয়া হয়েছে গত মৌসুমের সেরাদের পুরষ্কার। স্বাভাবিকভাবেই এ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মেসি-রোনালদোসহ ইউরোপিয়ান ফুটবলের সব তারকারা।

 

অনুষ্ঠানের শুরু থেকেই পাশাপাশি বসে ছিলেন মেসি ও রোনালদো। তাদের পাশেই ছিলেন সবশেষ মৌসুমের সেরা তিনের সংক্ষিপ্ত তালিকায় থাকা লিভারপুল ডিফেন্ডার ভার্জিল ফন ডিক। মেসি-রোনালদোকে পেছনে ফেলে মৌসুমের সেরা খেলোয়াড়ের পুরষ্কার জিতেছেন ফন ডিক।

সেরা খেলোয়াড়ের পুরষ্কার না পেলেও, মৌসুমের সেরা ফরোয়ার্ডের পুরষ্কার ঠিকই জিতেছেন বার্সেলোনার লিওনেল মেসি। এতে অবশ্য মনঃক্ষুণ্ণ হননি ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। তিনি বরং সারাটা সময় কাটিয়েছেন মেসির সঙ্গে হাস্যরস ও নানান কথাবার্তা বলে।

আর এ দুজনকে একসঙ্গে পেয়ে সংবাদমাধ্যমের কর্মীদেরও সুবিধা হয় তাদের কাজ করতে। একের পর এক জ্বলতে থাকে ক্যামেরার ফ্ল্যাশ, টেপা হয় শাটার, উঠতে থাকে এ দুজনের হাস্যোজ্জল সব ছবি। এরই ফাঁকে পাশাপাশি বসে থাকা মেসি-রোনালদোর ইন্টারভিউ নেন অনুষ্ঠানের একজন পরিচালক।

 

মেসির সঙ্গে খেলা ও প্রতিদ্বন্দ্বিতার ব্যাপারে নিজের অনুভূতির কথা জানাতে গিয়ে রোনালদো বলেন, ‘মেসির সঙ্গে আমি ১৫ বছর ধরে একই প্ল্যাটফর্মে খেলছি। আমি জানি না এর আগে ফুটবলে কখনও এমনটা হয়েছে কি-না, যে দুইজন একই মানের ফুটবলার একে অপরকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে এত দিন ধরে খেলে যাচ্ছে। এটা এতোটা সহজ নয়।’

এসময় মেসির সঙ্গে ডিনারের ইচ্ছার কথা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের মধ্যে পারস্পরিক সম্পর্ক খুবই ভালো। তবে আমাদের এখনও একসঙ্গে ডিনার করা হয়নি। আশা করি সামনেই হয়ে যাবে। আমি অবশ্যই স্পেনে খেলাটা মিস করি। আমরা একে অন্যকে আরও ভালো খেলতে সাহায্য করতাম। গত ১৫ বছর ধরে এই প্রতিদ্বন্দ্বিতা আমাদের আরও ভালো খেলতে উৎসাহিত করেছে।’

সাম্প্রতিককালে অনেক কথা শোনা গিয়েছে রোনালদোর অবসরের বিষয়ে। সে ব্যাপারে মেসিকে টেনে এনে খানিক মজার ছলেই তিনি বলেন, ‘মেসি আমার চেয়ে দুই বছরের ছোট। তবে আমার মনে হয় বয়সের তুলনায় আমি দেখতে ভালো আছি। আমি আগামী বছরেও এখানে থাকতে চাই। সম্ভব হলে পরে আরও কয়েক বছর। যারা আমাকে পছন্দ করে না, তাদের জন্য কোনো সুখবর নেই। আমাকে দেখতেই হবে তাদের।

 

শুধু যে রোনালদো একাই কথা বলেছেন সাক্ষাৎকারে, এমনটা নয়। স্বল্পভাষী মেসির মুখ থেকে বের হয়েছে অল্প কিছু কথা। যেখানে তিনি বলেন, ‘রোনালদোর সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতাটা আসলেই অসাধারণ। গোল করা সবসময়ই আনন্দের। তবে গোল করার আগেও মূল লক্ষ্য হলো কোনোকিছু জেতার। তবে আপনি যদি জেতেন এবং গোলও করেন। তাহলে সেটা অবশ্যই বেশি ভালো।’

এখনও পর্যন্ত পেশাদার ক্যারিয়ারে দুজন মিলে খেলেছেন ১৭৮৬ ম্যাচ, করেছেন ১৩৬০টি গোল ও ৪৯০টি অ্যাসিস্ট। এছাড়া মেসি ও রোনালদোর কেবিনেটে শোভা পাচ্ছে ৫৬টি দলীয় শিরোপা এবং সমান ৫টি করে ১০টি ব্যালন ডি’অর।

By Abraham

Translate »