Advertisements

চট্টগ্রাম নগরের আগ্রাবাদ ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের সামনে র‍্যাবের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ যুবলীগ কর্মী খোরশেদ আহমেদ নিহত হয়েছেন। রোববার রাত সাড়ে নয়টার দিকে এই ‘বন্দুকযুদ্ধের’ ঘটনা ঘটে বলে র‍্যাব কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

র‍্যাব সূত্র জানায়, খোরশেদের বিরুদ্ধে হত্যা, অস্ত্র আইন এবং চাঁদাবাজিসহ আটটি মামলা রয়েছে। তাঁর বাড়ি নগরের ওয়ার্ল্ড ট্রেড সেন্টারের অদূরে মোগলটুলী এলাকায়। আগ্রাবাদ ও আশপাশের এলাকায় ব্যাপক চাঁদাবাজির অভিযোগও রয়েছে খোরশেদের বিরুদ্ধে।

দলীয় ও স্থানীয় সূত্র জানায়, আওয়ামী লীগ সমর্থিত একজন কাউন্সিলরের সঙ্গে খোরশেদের সখ্যতা ছিল। সেই কাউন্সিলরের হাত ধরে অপরাধ জগতে তাঁর প্রবেশ ঘটে। একপর্যায়ে খোরশেদ বেপরোয়া হয়ে ওঠেন। তিনি নিজেকে যুবলীগের মোগলটুলী ওয়ার্ড শাখার সহসভাপতি বলে দাবি করতেন। খোরশেদের সঙ্গে স্থানীয় একজন জনপ্রতিনিধিও চাঁদাবাজিতে নামেন। আগ্রাবাদ এলাকার প্রতিটি দোকান এবং ফুটপাতের হকার থেকে নিয়মিত চাঁদা তোলা হয়। স্থানীয় ব্যবসায়ী এবং এলাকাবাসী তাঁদের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়ে ওঠে। সম্প্রতি গ্রুপ পরিবর্তন করে সাবেক একজন কাউন্সিলরের সঙ্গে হাত মেলান তিনি।

By Abraham

Translate »