জানাঅজানা

বৌ দৌড় প্রতিযোগিতায় চ্যাম্পিয়ন যিনি

Advertisements

উত্তর আমেরিকায় অনুষ্ঠিত হয়ে গেলো বিশ্বের অন্যতম মজার খেলা ওয়াইফ ক্যারিং বা বৌ দৌড় প্রতিযোগিতা। ২০ তম বার্ষিক এই ইভেন্টে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়েছে লাভবার্ড টিমের জেরম ও অলিভিয়া দম্পতি। ফিনিশিং লাইন স্পর্শ করতে এ জুটি সময় নিয়েছে ৫৫ দশমিক নয় নয় সেকেন্ড। আর এমন সাফল্যে বেশ রোমাঞ্চিত তারা।

ওয়াইফ ক্যারিং বা বউ দৌড়। সংসারের বন্ধন অটুট রাখতে মজার এ খেলাটি বিশ্বজুড়ে বেশ জনপ্রিয়। যদিও খেলাটি সারা বিশ্বেই ওয়াইফ ক্যারিং নামে সুপরিচিত। এ খেলায় জীবনসঙ্গিনীকে কাঁধে তুলে দৌড় দিয়ে ফিনিশিং লাইন স্পর্শ করতে হয় প্রতিযোগীদের।

বিশ্বের মজার মজার যেসব প্রতিযোগিতা আছে তার মধ্যে অন্যতম মজার প্রতিযোগিতা হলো বউ দৌড়। যদিও ওয়াইফ ক্যারিং যতটা না রোমাঞ্চকর, ততটা কঠিনও বটে।

প্রতিযোগিদের নিজের স্ত্রীকে কাঁধে নিয়ে দৌড়ের সময় শুধু সমতল নয় ,পাড়ি দিতে হয় পানিপথও,সেই সাথে কাঠের তৈরি প্রতিবন্ধকতা পার হতে হয় দম্পতিদের।

উত্তর আমেরিকায় রিভোর রিসোর্টে হয়ে গেলো এমনই এক বৌ দৌড় প্রতিযোগিতা। প্রতিবছরের মতো এবারও বিভিন্ন দেশের ৪৪টি দম্পতি মজার এ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়।

ফিনল্যান্ডের বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপ থেকে উত্তর আমেরিকার রেসের ফরম্যাটটি কিছুটা ভিন্ন। এ প্রতিযোগিতায় স্ত্রীর জন্য ওজনের কোনো সীমা নেই। তবে বয়সের সীমাবদ্ধতা রয়েছে। দম্পতিদের উভয়ের বয়স হতে হবে ২১ বছর।

উত্তর আমেরিকার ওয়াইফ ক্যারিংয়ে প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন লাভ বার্ডস টিমের দম্পতি জেরোম রোহন ও অলিভিয়া। ফিনিশিং লাইন স্পর্শ করতে এ জুটি সময় নেয় ৫৫ দশমিক নয় নয় সেকেন্ড। ২০ তম বার্ষিক ইভেন্টের ট্রফি জিততে পেরে আনন্দিত তারা।

জেরোম রহেম বলেন, ‘দেখুন, চ্যাম্পিয়ন হতে পেরে আমরা খুবই খুশি। সত্যি বলতে সাফল্য পেতে আমাকে অনেক পরিশ্রম করতে হয়েছে। বিশেষ করে পানি পথ আর কাঠের গুঁড়ি পাড়ি দেয়াটা বেশ চ্যালেঞ্জিং ছিল। তারপরও দিন শেষে জয় পাওয়ায় নিজেকে ভাগ্যবান মনে হচ্ছে।’

অলিভা বলেন, ‘প্রথমবারের মতো ট্রফি জিততে পারাটা স্বপ্নের মতো। সবাইকে ছাড়িয়ে জয়ী হয়েছি। আনন্দটা পরিবারের সঙ্গে ভাগ করে নিতে চাই।’

উনিশ শতকে ফিনিশ কিংবদন্তীর উপর ভিত্তি করে,ফিনল্যান্ডের প্রতিবেশী গ্রামগুলো থেকে পুরুষরা স্ত্রী চুরি করার ফলে ওয়াইফ ক্যারিং বা বউ বহন একটি খেলাতে পরিনত হয়েছিল।