আন্তর্জাতিক

আঞ্চলিক উত্তেজনার মাঝে সৌদি সফরে পুতিন; ২০ চুক্তি সই

Advertisements

এক দশকের বেশি সময় পর রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন সৌদি আরব সফর করছেন। যখন মধ্যপ্রাচ্য অঞ্চলে মারাত্মক রকমের সামরিক ও কূটনৈতিক উত্তেজনা বিরাজ করছে তখন তিনি সৌদি আরব সফর করলেন।

এরইমধ্যে সৌদি রাজা সালমান বিন আব্দুল আজিজের সঙ্গে স্পর্শকাতর কিছু আঞ্চলিক এবং সামরিক ও কৌশলগত সহযোগিতার বিষয় নিয়ে তিনি মতবিনিময় করেছেন। গতকাল পুতিন সৌদি সফরে রিয়াদ পৌঁছান। এরপর সৌদি ও রাশিয়ার কর্মকর্তাদের মধ্যে ২০টি চুক্তি সই হয় এবং এসব চুক্তি অনুষ্ঠানে পুতিন উপস্থিত ছিলেন।

রাজা সালমান দু দেশের মধ্যকার সম্পর্কের প্রশংসা করেছেন; বিশেষ করে জ্বালানি চুক্তি নিয়ে তিনি প্রশংসা করেন। রাজা সালমান বলেন, “নিরাপত্তা, স্থিতিশীলতা ও সন্ত্রাসবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের জন্য আমরা রাশিয়ার সঙ্গে কাজ করতে চাই।” অন্যদিকে পুতিনের পক্ষ থেকে দেয়া এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সৌদি আরবের সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় ও বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বিস্তারে আগ্রহী মস্কো এবং এ ধরনের সম্পর্ককে রাশিয়া বিশেষ গুরুত্ব দেয়।

সৌদি আরব ও রাশিয়ার মধ্যে চুক্তি সইয়ের অনুষ্ঠান

এদিকে, ক্রেমলিনের মুখপাত্র দিমিত্রি পেসকভ বলেছেন, প্রেসিডেন্ট পুতিন এবং রাজা সালমান সামরিক ও কৌশলগত সহযোগিতার ব্যাপারে আলোচনা করেছেন। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পেসকভ বলেন, সৌদি আরবের কাছে ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ বিক্রি করা হবে কিনা তা এখনো নিশ্চিত নয়, তবে এ নিয়ে পরিকল্পনা আছে।

পুতিনের এ সফরে রাশিয়া ও সৌদি আরবের মধ্যে পেট্রোলিয়াম এবং অন্য জ্বালানি শিল্প, মহাকাশ এবং স্যাটেলাইট চলাচল, বিচার, স্বাস্থ্য সেবা শুল্ক প্রশাসন, খনিজ সম্পদ, বিমান চলাচল, সংস্কৃতি এবং বাণিজ্য বিষয়ে প্রায় ২০টি চুক্তি হয়েছে। দিমিত্রি পেসকভ আরো জানান, সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমানের সঙ্গে প্রেসিডেন্ট পুতিনের বৈঠক হয়েছে এবং ওই বৈঠকে তেলের দাম নিয়ে আলোচনা হয়। আজই সৌদি আরব থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতে যাওয়ার কথা রয়েছে প্রেসিডেন্ট পুতিনের।