জাতীয়

শিশু নির্যাতনকারীদের কঠোর শাস্তি পেতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

Advertisements

শিশু হত্যাকারী ও নির্যাতনকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেওয়ার কথা জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, আজকের শিশুরা আগামী দিনের ভবিষ্যৎ। শিশুদের প্রতি কোনো অন্যায়-অবিচার কখনোই বরদাশত করা হবে না। কাজেই যারা শিশু হত্যা করবে, নির্যাতন করবে তাদের অবশ্যই কঠোর থেকে কঠোরতর শাস্তি পেতে হবে।

শুক্রবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদ আয়োজিত আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছোট ভাই শহীদ শেখ রাসেলের ৫৬তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

প্রতিটি শিশুর সুন্দর ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করতে তার সরকার কাজ করছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেছেন, প্রতিটি শিশুর ভেতর একটা মনন, চেতনা ও শক্তি রয়েছে। সেটাকে বিকশিত করতে হবে। শিশুরা যাতে লেখাপড়া শিখে আধুনিকমনস্ক হয়ে গড়ে উঠতে পারে, প্রতিটি শিশুর জীবন যেন অর্থবহ হয়– সেজন্য সরকার প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিয়েছে। শিশুদের যাতে ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করতে না হয় এবং ঝরেপড়া কিংবা প্রতিবন্ধী শিশুদের জন্যও নানা কার্যক্রম হাতে নিয়েছে সরকার।

সম্প্রতি দেশব্যাপী শিশু হত্যা ও নির্যাতনের কথা তুলে ধরে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, শিশুদের ওপর অত্যাচার বেড়েছে। বাবা হয়ে সন্তানকে হত্যা করা হয়েছে অন্যকে ফাঁসানোর জন্য। কী এক বিকৃত মানসিকতা! এ ধরনের হীন মানসিকতা সমাজে বেড়েই চলেছে। পঁচাত্তরের ১৫ আগস্ট ছোট্ট শিশু শেখ রাসেল হত্যার পর ন্যায়বিচার প্রতিষ্ঠিত হলে আজ শিশু হত্যা ও নির্যাতনের মত ব্যাধি সমাজে ছড়িয়ে পড়তো না।