আন্তর্জাতিক

সিরিয়া থেকে তুর্কি ও মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করতে হবে: প্রেসিডেন্ট আসাদ

Advertisements

সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদ তার দেশের উত্তর-পূর্বাঞ্চলে কুর্দি গেরিলাদের বিরুদ্ধে তুর্কি সামরিক অভিযান পুরোপুরি বন্ধ করার এবং সিরিয়ায় অবস্থানরত সব বিদেশি সেনাকে অবিলম্বে দেশটি থেকে সরিয়ে নেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি রাজধানী দামেস্কে শুক্রবার রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের সিরিয়া বিষয়ক বিশেষ প্রতিনিধি আলেক্সান্ডার ল্যাভরেন্তিয়েভের সঙ্গে এক বৈঠকে এ আহ্বান জানান। তিনি বলেন, সিরিয়ায় তুর্কি সেনা অভিযান বন্ধের পাশাপাশি তুর্কি ও মার্কিন সেনা নির্বিশেষে দেশটিতে অবৈধভাবে অবস্থানরত সব বিদেশি সেনা প্রত্যাহার করতে হবে। আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী সিরিয়ার ভূমিতে অবস্থানরত এসব বিদেশি সেনা ‘দখলদার’ হিসেবে চিহ্নিত বলেও তিনি মন্তব্য করেন।

প্রেসিডেন্ট আসাদ বলেন, তার দেশের জনগণ দখলদার সেনাদের বিরুদ্ধে সর্বাত্মক প্রতিরোধ গড়ে তুলবে।

শুক্রবার দামেস্কে প্রেসিডেন্ট আসাদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন ল্যাভরেন্তিয়েভ

সাক্ষাতে ল্যাভরেন্তিয়েভ সিরিয়ার অখণ্ডতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতি রাশিয়ার পূর্ণ সমর্থন পুনর্ব্যক্ত করে বলেন, সিরিয়ার সার্বভৌমত্ব লঙ্ঘিত হয় মস্কো এমন যেকোনো পদক্ষেপের বিরোধী এবং তা মেনে নেবে না।

তুরস্কের সেনাবাহিনী গত ৯ অক্টোবর থেকে ‘সন্ত্রাস বিরোধী যুদ্ধ’ ও ‘তুরস্ক-সিরিয়া সীমান্ত থেকে কুর্দিদের উচ্ছেদের’ নামে সামরিক অভিযান শুরু করে। কুর্দি গেরিলাদেরকে আঙ্কারা ‘সন্ত্রাসী’ হিসেবে অভিহিত করেছে। তুর্কি সামরিক অভিযানে এ পর্যন্ত শত শত সামরিক ও বেসামরিক মানুষ হতাহত হয়েছে এবং লাখ লাখ বেসামরিক মানুষ প্রাণ বাঁচাতে ঘরবাড়ি ছেলে পালিয়ে গেছে।

তুর্কি সেনাদের আগ্রাসনের মুখে কুর্দি গেরিলারা তুরস্কের আগ্রাসন রুখে দিতে সিরিয়া সরকারের সঙ্গে চুক্তি করেছে। চুক্তি অনুযায়ী সিরিয়ার সরকারি সেনারা এরইমধ্যে উত্তর সিরিয়ায় কুর্দি গেরিলা অধ্যুষিত এলাকায় প্রবেশ করেছে।