Advertisements

উত্তর সিরিয়ার নিরাপদ অঞ্চল প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে রাশিয়া ও তুরস্কের মধ্যে যে চুক্তি হয়েছে, তাকে বিরাট সাফল্য হিসেবে দেখছেন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বুধবার (২৪ অক্টোবর) এক টুইট পোস্টে তিনি ওই চুক্তির প্রশংসা করেন।

২০১৯ সালের ৯ অক্টোবর তুর্কি সীমান্তবর্তী সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় এলাকা থেকে সিরিয়ার কুর্দি বিদ্রোহীদের উৎখাতে অভিযান শুরু করে তুরস্ক। তার আগ মুহূর্তে ওই অঞ্চল থেকে মার্কিন সেনা প্রত্যাহার করা হয়। পরে ওয়াশিংটনের মধ্যস্থতায় গত ১৭ অক্টোবর ৫ দিনের যুদ্ধবিরতিতে সম্মত হয় আঙ্কারা। যুদ্ধবিরতিকালে তুর্কি বাহিনী সিরিয়াতেই অবস্থান করছিলো। তবে সে সময় কোনও সামরিক পদক্ষেপ নেয়নি তারা।

গত ২৩ অক্টোবর ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি জানায়,সিরীয় কুর্দিদের বিরুদ্ধে সামরিক পদক্ষেপ নেওয়ার এক চুক্তিতে সম্মত হয়েছে তুরস্ক ও রাশিয়া। উভয়দেশ চুক্তিটিকে ‘ঐতিহাসিক’ হিসেবে আখ্যায়িত করেছে। ওই চুক্তি স্বাক্ষরের পর তুর্কি সীমান্তে টহল শুরু করেছে রুশ সেনারা।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প বলেন, ‘সিরিয়া-তুরস্ক সীমান্তে নিরাপদ অঞ্চল গঠন করার জন্য মস্কো এবং আঙ্কারার মধ্যে যে চুক্তি হয়েছে তা বিরাট সফলতা। যুদ্ধবিরতি কার্যকর হয়েছে ও যুদ্ধ শেষ হয়েছে। কুর্দিরা এখন নিরাপদ ও তারা আমেরিকার সাথে খুব সুন্দরভাবে কাজ করেছে।’

নতুন এক জনমত জরিপে দেখা যাচ্ছে, মাত্র ৩৭ ভাগ মানুষ ট্রাম্পের সেনা প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়েছে। অন্যদিকে, ২০ ভাগ ভোটার বলেছেন, এ ব্যাপারে তাদের কোনও মতামত নেই। আর ডেমোক্র্যাটিক দলের শতকরা ৬২ ভাগ সমর্থক ও রিপাবলিকান দলের শতকরা ৬১ ভাগ সমর্থক ট্রাম্পের সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করছেন।

By Abraham

Translate »