Advertisements

ফেসবুক ও ইনস্টাগ্রামকেও পেছনে ফেলে দিয়েছে চীনা মিউজিক ভিডিও বানানো ও শেয়ার করার প্ল্যাটফর্ম টিকটক। চলতি বছরের সেপ্টেম্বর পর্যন্ত প্রায় ৬ কোটি (৬০ মিলিয়ন) বার ডাউনলোড করা হয়েছে এই অ্যাপ। আর তুলনামূলকভাবে ৫০ দশমিক ২ মিলিয়নবার ডাউনলোড করা হয়েছে ফেসবুক অ্যাপ।

ভারতীয় গণমাধ্যম জি নিউজের খবরে বলা হয়েছে, তিন বছর ধরে বেড়েই চলেছে চীনা ভিডিও তৈরির অ্যাপ টিকটকের ব্যবহারকারীর সংখ্যা। বর্তমানে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অ্যাপসের তালিকায় শীর্ষে টিকটক। আর দ্বিতীয় স্থানে ফেসবুক ও তৃতীয় স্থানে রয়েছে ইনস্টাগ্রাম।

সব বয়সীর পছন্দ এই টিকটক অ্যাপ। নিজের ভেতরকার অভিনেতাসত্তাকে ফুটিয়ে তুলতে সবাই এই অ্যাপে এসে ভিডিও করেন এবং তা শেয়ার করেন। আপাতত ভারতে টিকটকের বেশির ভাগ ভিডিও হয় নাচ, গান বা কৌতুকধর্মী। এবার সেই রীতি বন্ধ করতে উদ্যোগী হতে চাইছে টিকটক কর্তৃপক্ষ। নাচ-গানের পাশাপাশি রান্না, হাতের কাজ, খেলা ইত্যাদি ধরনের ভিডিও পোস্ট করতে ব্যবহারকারীদের উৎসাহ দিতে চাইছে সংস্থাটি। প্রায় ১২ কোটি ভারতীয় টিকটক ব্যবহার করেন। এই ব্যবহারকারীরা বেশির ভাগই ছোট ছোট শহরের বাসিন্দা।

টিকটক অ্যাপের জনপ্রিয়তা ইনস্টাগ্রাম, স্ন্যাপচ্যাট, হেলো ও টুইটারকেও ছাপিয়ে গেল। জানা গেছে, গুগল প্লে স্টোর থেকে সবচেয়ে বেশি এই টিকটক অ্যাপ ডাউনলোড করা হয়। এ বছরের সেনসর টাওয়ার প্রতিবেদন অনুযায়ী, বিশ্বজুড়ে সবচেয়ে বেশি ডাউনলোড অ্যাপ হলো এই টিকটক। ৬ কোটি‌র কাছাকাছি মানুষ টিকটক অ্যাপ ডাউনলোড করেছে। এর মধ্যে ভারতে রয়েছে ৪৪ শতাংশ। বলিউড তারকা থেকে শুরু করে সাধারণ মানুষ সবারই খুব পছন্দের অ্যাপ টিকটক। এখন তো বিভিন্ন ব্যবসায়িক ক্ষেত্রেও টিকটক অ্যাপ ব্যবহার করে মানুষের কাছে পৌঁছানোর চেষ্টা চলছে। টিকটকের পর দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে ফেসবুক। ভারতের ২৩ শতাংশ মানুষ ফেসবুক অ্যাপ ডাউনলোড করে। তালিকায় শীর্ষ পাঁচের মধ্যে ইনস্টাগ্রাম, লাইকি, স্ন্যাপচ্যাটের মতো অ্যাপগুলো রয়েছে।

 

By Abraham

Translate »