Advertisements

প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগবিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান বলেছেন, সরকার আইটি ফ্রিল্যান্সারদের রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আনার উদ্যোগ নিয়েছে। কাজটি প্রায় শেষের দিকে। আগামী বছরের জানুয়ারিতেই শুরু হবে রেজিস্ট্রেশন দেওয়ার কাজ। আইটি ফ্রিল্যান্সারদের রেজিস্ট্রেশন হয়ে গেলে তাদের আর কোথাও বিড়ম্বনায় পড়তে হবে না। গতকাল রাজধানীর পুরানা পল্টনে ইকোনমিক রিপোর্টার্স ফোরামের (ইআরএফ) কার্যালয়ে ‘দ্য রোল অব মিডিয়া ইন প্রমোটিং এসএমই ডেভেলপমেন্ট অ্যান্ড সাসটেইনেবিলিটি’ শীর্ষক কর্মশালায় তিনি এসব কথা বলেন। ইআরএফ সভাপতি সাইফুল ইসলাম দিলালের সভাপতিত্বে কর্মশালায় আরও উপস্থিত ছিলেন শিল্প সচিব আবদুল হালিম ও বিসিকের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ মোশ্তাক হাসান প্রমুখ।

সালমান এফ রহমান বলেন, আইটি ফ্রিল্যান্সারদের ডাটাবেজ শুরুর আগে ধারণা ছিল দেশে হয়তো দু-এক লাখ আইটি ফ্রিল্যান্সার রয়েছেন। কিন্তু দেশে এখন আইটি ফ্রিল্যান্সারের সংখ্যা ৬ লাখেরও বেশি। আইটি ফ্রিল্যান্সাররা প্রতি মাসে গড়ে তিন থেকে চার লাখ টাকা আয় করলেও তাদের এ আয় সম্পর্কে অনেকেরই ধারণা নেই। এ কারণেই দেশের ব্যাংকগুলো ফ্রিল্যান্সারদের পাওনা পরিশোধের সময় নানাবিধ প্রশ্ন করেন, প্রাপ্ত উত্তর ব্যাংকের পছন্দ হয় না। তাই ঝামেলা এড়াতে বেশিরভাগ আইটি ফ্রিল্যান্সার হুন্ডির মাধ্যমে তাদের আয়ের টাকা বিদেশ থেকে দেশে আনেন। এতে সরকার ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এমন অবস্থা থেকে পরিত্রাণ পেতে ফ্রিল্যান্সারদের একটি ডাটাবেজ করার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তিনি আরও জানান, আইটি ফ্রিল্যান্সারকে রেজিস্ট্রেশনের আওতায় আনার পর প্রত্যেকের কাছে রেজিস্ট্রেশন সনদ থাকবে। আইটি ফ্রিল্যান্সারদের ব্যাংক কোনো প্রশ্ন করবে না। এ সনদ দিয়ে তারা অন্যান্য কাজও সহজে করতে পারবেন।

By Abraham

Translate »