Advertisements

আন্তর্জাতিক জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেটের (আইএস) প্রধান আবু বকর আল-বাগদাদির লাশ সাগরে সমাহিত করা হয়েছে বলে দাবি করেছে মার্কিন সেনাবাহিনী। গতকাল সোমবার পেন্টাগন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে বলে বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে জানানো হয়।

গত শনিবার সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলীয় এলাকা ইদলিবে আইএস প্রধানের গোপন সুড়ঙ্গে অভিযান চালায় মার্কিন এলিট ফোর্স। মার্কিন সেনাবাহিনীর হাতে ধরা না দিয়ে তিন ছেলেমেয়েসহ আত্মঘাতী হন বাগদাদি। এরপর তাঁর লাশ সাগরে ফেলে দেয় মার্কিন সেনারা। তবে কোন সমুদ্রে তাঁর লাশ ফেলা হয়েছে, সে বিষয়ে বিস্তারিত কিছু জানায়নি মার্কিন সেনাবাহিনী।

এর আগে ২০১১ সালের ২ মে পাকিস্তানে অভিযান চালিয়ে সাবেক আল-কায়েদা নেতা ওসামা বিন লাদেনকে হত্যার দাবি করে তৎকালীন ওবামা প্রশাসন। সে সময়ও তাঁর লাশের হদিস নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। সে সময় বলা হয়, লাদেনের লাশ সাগরে সমাহিত করা হয়েছে।

মার্কিন সেনা কর্মকর্তা জেনারেল মার্ক মাইলি বলেছেন, তাঁর দেহাবশেষের শেষ কাজ সম্পন্ন হয়েছে। সম্পূর্ণ এবং যথাযথভাবে পরিচালিত হয়েছে।

গত রোববার আনুষ্ঠানিকভাবে বাগদাদির মৃত্যুর কথা জানান মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। ট্রাম্প বলেন, মার্কিন অভিযানে বাগদাদি কাপুরুষের মতো আত্মহত্যা করেছেন। মার্কিন প্রেসিডেন্টের দাবি, আটটি হেলিকপ্টার অভিযানে অংশ নেয়। বাগদাদি প্রথমে পালানোর চেষ্টা করেন। পরে সুইসাইড ভেস্টের বিস্ফোরণ ঘটিয়ে আত্মহত্যা করেন।

By Abraham

Translate »