Advertisements

তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে অস্ট্রেলিয়া সফরে গিয়ে হোয়াইটওয়াশ হতে হলো শ্রীলঙ্কাকে। প্রথম দুই ম্যাচে হেরে আগেই সিরিজ খোয়ায় সফরকারীরা। আজ শুক্রবার সিরিজের তৃতীয় ও শেষ ম্যাচে টস জিতে আগে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নেয় অজিরা।

ব্যাট করতে নেমে লঙ্কানরা শুরু থেকেই বিপর্যয়ে পড়ে অজি বোলারদের তোপে। দুই ওপেনার কুশল মেন্ডিস ও নিরশন ডিকওয়েলার জুটি ভাঙে মাত্র ৩ রানে। রানের খাতা খোলার আগেই ডিকওয়েলাকে ফেরান মিচেল স্টার্ক। এরপর আরেক ওপেনার কুশল মেন্ডিসকে ১৩ রানে ফেরান ক্যান রিচার্ডসন।

তৃতীয় উইকেট জুটিতে কুশল পেরেরা ও আভিষ্কা ফার্নান্দোর ৪৩ রানের জুটি টেনে নেয় দলীয় ৭৬ রান পর্যন্ত। ফার্নান্দো ২০ রান করে সাজঘরে ফেরার পর অসাধা ফার্নান্দোও ৬ রান করে পথ ধরেন সাজঘরের। দলীয় ৯৯ রানে নেই ৪ উইকেট।

এর ভেতর অর্ধশতক পূর্ণ করেন কুশল পেরেরা। ৪৫ বলে ৫৭ রানের ইনিংস খেলে ক্যাচ দিয়ে বিদায় নেন পেট কামিন্সের বলে।

বাকি ব্যাটসম্যানরা বড় ইনিংস খেলতে না পারায় ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৪২ রান তুলে শ্রীলঙ্কা। অজিদের হয়ে সমান ২টি করে উইকেট নেন মিচেল স্টার্ক, ক্যান রিচার্ডসন ও পেট কামিন্স।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে অজি দুই ওপেনার অ্যারন ফিঞ্চ ও ডেভিড ওয়ার্নার মিলে তুলে ফেলেন ৬৯ রান। ফিঞ্চ তার ইনিংস অর্ধশতক পর্যন্ত টেনে নিতে না পারলেও পেরেছেন ওয়ার্নার।

ফিঞ্চকে ৩৭ রানে থামান লাহিরু কুমারা। স্টিভ স্মিথ মাত্র ১৩ রানে থামেন নুয়ান প্রদীপের বলে ক্যাচ দিয়ে।

এরপর দলীয় ৯৯ রানে ম্যাক ডেরমটকে লাসিথ মালিঙ্গা ৫ রানে সাজঘরে ফেরালেও জয় পেতে কষ্ট হয়নি স্বাগতিকদের।

ওয়ার্নারের ৫৭ আর অ্যাস্টন টার্নারের ২২ রানে ভর করে ১৭ ওভার ৪ বলে ৭ উইকেটের জয় তুলে নেয় অস্ট্রেলিয়া। লঙ্কানদের হয়ে ১টি করে উইকেট নেন মালিঙ্গা, লাহিরু কুমারা ও নুয়ান প্রদীপ।

এর আগে সিরিজের প্রথম ম্যাচে স্বাগতিকদের কাছে ১৩৪ রানে হেরে যায় সফরকারীরা। ওই ম্যাচে অস্ট্রেলিয়া করে ২৩৩ রান। ডেভিড ওয়ার্নার একাই করেন ১০০ রান। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ওয়ার্নারের সমান রানও করতে পারেনি শ্রীলঙ্কা। অল-আউট হয় মাত্র ৯৯ রানে।

দ্বিতীয় ম্যাচে লঙ্কানদের দেয়া ১১৭ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে ৯ উইকেটের বড় জয় পায় অস্ট্রেলিয়া।

By Abraham

Translate »