Advertisements

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নতুন সড়ক পরিবহন আইনটি বাস্তবসম্মত নয়। এটিকে আরো গুরুত্ব দিয়ে সংশ্লিষ্ট স্টক হোল্ডারদের নিয়ে আলোচনায় বসে এই আইন প্রনয়ণ করা উচিত ছিল। তাহলে আজ এই সংকট তৈরি হতো না।

বুধবার সকালে ঠাকুরগাঁও শহরের কালীবাড়িস্থ পৈতৃক বাস ভবনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন তিনি।

মির্জা ফখরুল বলেন, নির্বাচিত সংসদ না থাকায় এক দল সুশাসন প্রতিষ্ঠা করতে পারছে না। দেশের চলমান সমস্যার দিকে সরকারের মনযোগ নেই। বড় বড় মেগা প্রজেক্ট তৈরি করে কীভাবে জনগণের টাকা লুট করা যায় এ নিয়ে তারা ব্যস্ত। কোটি কোটি টাকা লুট করে তারা বিদেশে পাচার করছে। এসব প্রতিবাদে দাড়াঁলেই আইনশৃংখলা বাহিনী দিয়ে তা পণ্ড করে দিচ্ছে।

তিনি আরো বলেন, এই সরকার রাষ্ট্র পরিচালনায় ব্যর্থ হয়েছে। তাই দেশে এ সময়ে চাল, পেয়াঁজ-লবণ সংকট দেখা দিয়েছে। দেশকে ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত করেছে সরকার। কোথাও আইনের সুশাসন নেই। দুঃশাসনের যাতাকলে সাধারণ মানুষ দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। এই পরিস্থিতি থেকে পরিত্রাণের একমাত্র উপায় গণঅভ্যুত্থান।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘এই সরকার চায় না খালেদা জিয়া জেল থেকে বাইরে আসুক। কৌশলে খালাদে জিয়াকে আটক করে রেখেছে তারা।’

খালেদা জিয়া একজন জনপ্রিয় নেতা দাবি করে ফখরুল বলেন, এই সরকার বেগম খালেদা জিয়াকে আটকে রেখে ভুল কাজ করছে। যদি তিনি জেল থেকে বেরিয়ে আসতেন তাহলে বর্তমানে দেশে যে সংকট রয়েছে সেটি কাটিয়ে উঠতো। সরকার যদি খালেদা জিয়ার সঙ্গে আলাপ আলোচনা শুরু করে তাহলে এই সংকট থেকে দেশ ও জাতীকে অবশ্যই মুক্ত করা যাবে।

এ সময় জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মির্জা ফয়সল আমীন, উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদসহ দলীয় নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

By Abraham

Translate »