Advertisements

ইরানের বিমান বাহিনী পারস্য উপসাগর এবং হরমুজ প্রণালীতে কল্পিত যুদ্ধের মহড়া চালাচ্ছে। সত্যিকার যুদ্ধের অবস্থা এ মহড়ার সময়ে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে । সম্ভাব্য যুদ্ধের হুমকির মুখে রণ-প্রস্তুতি বাড়ানো এবং শত্রুর মোকাবেলায় ইরানের সামরিক সরঞ্জামের পরিস্থিতি যাচাই করার জন্য চালানো হয় বিশাল এ মহড়া।

ইরানের নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি ক্ষেপণাস্ত্র

‘গার্ডিয়ান অব বেলায়েত স্কাই-৯৮ ‘ নামের এ মহড়া ইরানের কেন্দ্রীয় প্রদেশ সেমনানে চলছে। ৪ লাখ ১৬  বর্গকিলোমিটার অর্থাৎ পারস্য উপসাগর এবং কৌশলগত গুরুত্বপূর্ণ হরমুজ প্রণালীর মোট আয়তনের সমপরিমাণ এলাকায় চলছে ‘গার্ডিয়ান অব বেলায়েত স্কাই-৯৮।’

আকাশ পথের নানা ধরণের হুমকি মোকাবেলায়  অত্যাধুনিক ক্ষেপণাস্ত্র এবং রাডার ব্যবস্থা এ মহড়ায় অংশ নিয়েছে। এ সব ক্ষেপণাস্ত্র এবং রাডার ব্যবস্থা পুরোপুরি ইরানের নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি করা হয়েছে।

ইরানের সেনাবাহিনীর বিমান প্রতিরক্ষা বাহিনীর কমান্ডার জেনারেল আলিরেজা সাবাহ্‌-ফারদ এ মহড়ার অবকাশে কথা বলেন। তিনি বলেন, শত্রু অবস্থান শনাক্ত করার পাশাপাশি তাকে চিহ্নিত করে দেয়াই ছিল মহড়ার প্রথম পর্যায়ে কর্মসূচি।

ইরানের নিজস্ব প্রযুক্তিতে তৈরি হরমুজগান এবং খালিজে ফার্স ক্ষেেপণাস্ত্র

এ সময়ে তিনি ইরানের আকাশসীমা লঙ্ঘনের যে কোনও প্রচেষ্টার বিরুদ্ধে কঠোর হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন। তিনি বলেন, এটি হলো ইরানের রক্তিম রেখা বা রেড লাইন।

ইরান এবং আমেরিকার মধ্যে যখন উত্তেজনা তুঙ্গে সে সময় এ মহড়া অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

By Abraham

Translate »