Advertisements

ইন্দোর টেস্টে বাজেভাবে হারের পরও প্রথম দিবা-রাত্রির টেস্টকে স্মরণীয় করে রাখতে আজ কলকাতার ইডেন গার্ডেন্সে স্বাগতিক ভারতের মুখোমুখি হচ্ছে বাংলাদেশ।
ইন্দোরে সিরিজের প্রথম টেস্ট মাত্র তিনদিনে ইনিংস ও ১৩০ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। এমন অবস্থায় গোলাপি বলে প্রথমবারের মত খেলতে নামতে হচ্ছে বাংলাদেশকে। এমনকি ভারতের জন্যও এটি প্রথম দিবা-রাত্রির টেস্ট।
ইতোমধ্যে কলকাতা টেস্টের প্রথম তিন দিনের টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে। টেস্ট ম্যাচটিকে স্মরনীয় করে রাখতে ‘আনন্দের নগরী’ বানিয়ে গোলাপি আবরনে রাঙ্গিয়ে তোলা হয়েছে কলকাতাকে।
ঐতিহাসিক টেস্টটি শুরু হবে বাংলাদেশ সময় দুপুর ১টা ৩০ মিনিটে। টস’এর আগে হেলিকপ্টার থেকে নেমে ইডেন গার্ডেনে দুই অধিনায়কের হাতে গোলাপি বল তুলে দিবেন ভারতীয় সেনাবাহিনীর প্যারাট্রুপাররা।
আর বেল বাজিয়ে ম্যাচের উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
২০০০ সালে বাংলাদেশের অভিষেক টেস্টের প্রতিপক্ষ ছিলো ভারত। তাই ঐ টেস্টের সকল সদস্যকে দিবার-রাত্রির ম্যাচে আমন্ত্রন জানানো হয়েছে। সকল খেলোয়াড়দের সম্মান জানাবে সিএবি। বাংলাদেশের প্রথম টেস্টে ভারতের অধিনায়কত্ব করেছিলেন বিসিসিআইর বর্তমান সভাপতি সৌরভ গাঙ্গুলী।
বাংলাদেশের অভিষেক টেস্টের দুই খেলোয়াড় আমিনুল ইসলাম বুলবুল ও আল শাহরিয়ার রোকন ছাড়া অন্য সবাই ইতোমধ্যে কলকাতায় পৌঁছেছেন। ঐ টেস্টে সেঞ্চুরি করেছিলেন বাংলাদেশের বুলবুল।
টেস্টকে সামনে রেখে পুরো শহরকেই যেন গোলাপি রঙ্গে সাজানো হয়েছে। ২২ তলা টাটা ভবন এবং ৪২তলা আরেকটি ভবনকে বর্নাঢ্য সাজে সাজানো হয়েছে।
দু’দলের কাছেই ম্যাচটি অত্যন্ত গুরুত্বপুর্ন। তবে বাংলাদেশের চেয়ে বেশ এগিয়ে রয়েছে ভারত। কারন তাদের দলের অনেক খেলোয়াড়ই ঘরোয়া আসরে গোলাপি বলে খেলেছেন। বাংলাদেশের ঘরোয়া আসরে ২০১৩ সালে এনসিএল’এ বাংলাদেশের একবার গোলাপি বলে খেলার সুযোগ পেয়েছিলো। তবে সেই স্মৃতি এতোদিনে ভুলেও গেছে বাংলাদেশ।
কলকাতা টেস্টের আগে চারদিন গোলাপি বলে অনুশীলন করার সুযোগ পেয়েছে বাংলাদেশ ও ভারত।
তবে বড় বিষয় হচ্ছে টেস্ট স্কোয়াডে থাকা অনেকেই ভারতের টি-২০ দলে ছিলেন না। তাই বাংলাদেশের বিপক্ষে টি-২০ সিরিজ চলাকালীন ভারতের অনেক খেলোয়াড়ই গোলাপি বলে নিজের অনুশীলন সাড়তে পারে।

By Abraham

Translate »