জানাঅজানা

মল লেগে থাকবে না এমন টয়লেটের আবিষ্কার

Advertisements
বিজ্ঞানীরা বলছেন, সারা বিশ্বে প্রতিদিন টয়লেট ফ্লাশ করতে যে পরিমাণ পানি ব্যবহার করা হয় সেটা আফ্রিকাতে একদিনে যতো পানি ব্যবহার করা হয় তারচেয়েও ছয় গুণ বেশি।

যুক্তরাষ্ট্রে গবেষকরা বলছেন, তারা এমন একটি চরম-পিচ্ছিল টয়লেট তৈরি করেছেন, যার ফলে সারা বিশ্বে প্রচুর পরিমাণে পানির অপচয় রোধ করা যেতে পারে।

পেন স্টেট বিশ্ববিদ্যালয়ের বিজ্ঞানীরা বলছেন, এই টয়লেটের গায়ে এমন একটি জিনিসের প্রলেপ দেওয়া হয়েছে যাতে এতে লেগে থাকা মল-মূত্র পরিষ্কার করতে খুব বেশি পানি খরচ করতে হবে না।

অর্থাৎ টয়লেটটি এতোই পিচ্ছিল হবে যে এর গায়ে বিষ্ঠা লেগে থাকবে না।

শুধু তাই নয়, বিজ্ঞানীরা আরো দাবি করছেন যে, এই আস্তরণের ফলে এর গায়ে ব্যাকটেরিয়া জমতে পারবে না এবং তাতে দুর্গন্ধও কম তৈরি হবে।

বলা হচ্ছে, এই পদার্থটি টেফলনের চেয়েও বেশি পিচ্ছিল। তবে মূত্রের কারণে এর পিচ্ছিল গুণাগুণ নষ্ট হয়ে যেতে পারে এবং প্রায় ৫০ বার ফ্লাশ করার পর নতুন করে প্রলেপ বসাতে হবে।

গবেষকরা আশা করছেন, এই আবিষ্কারের ফলে পানির খরচ কমবে। ধারণা করা হয়, প্রত্যেক দিন সারা বিশ্বে টয়লেট ফ্লাশ করতে গিয়ে খরচ হয় ১৪ হাজার কোটিরও বেশি লিটার পানি।

নেচার সাসটেইনেবিলিটি নামের একটি সাময়িকীতে এই গবেষণার ফলাফল প্রকাশিত হয়েছে।

 

সেখানে বলা হয়েছে, সারা বিশ্বে প্রতিদিন টয়লেট ফ্লাশ করতে যে পরিমাণ পানি ব্যবহার করা হয় সেটা আফ্রিকাতে একদিনে যতো পানি ব্যবহার করা হয় তার চেয়েও ছয় গুণ বেশি।

“আমাদের টিম খুবই শক্তিশালী এই তরল প্রলেপটি তৈরি করেছে যা ব্যাকটেরিয়াও প্রতিরোধ করতে পারে। এর ফলে টয়লেট হবে অনেক পরিষ্কার এবং জীবাণুমুক্ত,” বলেন টাক-সিং ওং, যন্ত্রকৌশল বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক।

“টয়লেটের গায়ে মল লেগে থাকা শুধু ব্যবহারকারীদের জন্যেই বিব্রতকর নয়, স্বাস্থ্যের জন্যেও এটি বিপদজনক।”