Advertisements

তিন বছর আগে গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিতে নজিরবিহীন জঙ্গি হামলার মামলাটির রায় হবে আজ বুধবার।

সন্ত্রাসবিরোধী আইনের এই মামলায় আট আসামির সবার সর্বোচ্চ শাস্তি হবে বলে আশা করছে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবীরা; যদিও এই আসামিদের সবাই আদালতে আত্মপক্ষ সমর্থনের সময় নিজেদের নির্দোষ বলে দাবি করেছিলেন।

মঙ্গলবার এই মামলায় রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী মো. গোলাম ছারোয়ার খান জাকির বলেন, “দেশের সার্বভৌমত্ব ও জননিরাপত্তা বিপন্ন করতে অত্যন্ত পরিকল্পিতভাবে ঠাণ্ডা মাথায় হলি আর্টিজান বেকারিতে হামলা করা হয়। কূটনৈতিক এলাকায় হামলা করে বহির্বিশ্বে বাংলাদেশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার উদ্দেশ্য ছিল সন্ত্রাসীদের।

“তাই এই মামলার রায়ে অভিযুক্ত আসামিদের সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড হবে বলে আমরা আশাবাদী,” বলেন রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি জাকির; যিনি দাবি করছেন, আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ করতে পেরেছেন তারা।

আসামিদের বিরুদ্ধে সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে হত্যার অপরাধ প্রমাণিত হলে সর্বোচ্চ শাস্তি মৃত্যুদণ্ড অথবা যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের বিধান রয়েছে আইনে।

পুরান ঢাকার আদালত পাড়ায় ঢাকার সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালে বসে বিচারক মো. মজিবুর রহমান আলোচিত এই মামলার রায় দেবেন।

এক বছর আগে বিচার শুরুর পর রাষ্ট্রপক্ষে ২১১ জন সাক্ষীর মধ্যে ১১৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ, আত্মপক্ষ সমর্থনে আসামিদের বক্তব্য শোনার পর উভয় পক্ষের যুক্তিতর্ক শুনানি শেষে গত ১৭ নভেম্বর রায়ের দিন ধার্য করেন এই বিচারক।

নব্য জেএমবির সদস্য আসামিদের বিরুদ্ধে মামলার এই রায়কে কেন্দ্র করে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা ইতোমধ্যে নিয়েছে র‌্যাব-পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী।

By Abraham

Translate »