আন্তর্জাতিক

আলোচনার পথ বন্ধ নয় তবে আমেরিকাকে নীতি পরিবর্তন করতে হবে: ইরান

Advertisements

আমেরিকার সঙ্গে আলোচনার পথ বন্ধ করা হয়নি বলে মন্তব্য করেছেন ইরানের পার্লামেন্ট স্পিকার আলী লারিজানি। তবে তিনি বলেছেন, ইরানের বিরুদ্ধে আমেরিকার ‘সর্বোচ্চ চাপ’ প্রয়োগের নীতি ভুল এবং মার্কিন নীতি নির্ধারকদেরকে এ নীতি পরিহার করতে হবে।

লারিজানি আজ (রোববার) তেহরানে এক জনাকীর্ণ সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন। এ সময় আমেরিকার সিবিএস নিউজ চ্যানেলের সংবাদদাতা প্রশ্ন করেন, “ইরান ও আমেরিকার মধ্যকার চলমান অচলাবস্থা অবসানের কার্যকর উপায় কি?” উত্তরে স্পিকার বলেন, “কোনো কোনো দেশ ওয়াশিংটনের সঙ্গে তেহরানকে আলোচনায় বসানোর চেষ্টা করছে এবং তেহরানও আলোচনার পথ পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়নি। আমেরিকাকে একথা উপলব্ধি করতে হবে যে, তারা ইরানের বিরুদ্ধে যে নীতি গ্রহণ করেছে তা ভুল ও অন্যায়।”

ইরানের সমালোচনা করে ইউরোপীয় পার্লামেন্ট সম্প্রতি যে বক্তব্য দিয়েছে সে সম্পর্কিত এক প্রশ্নের উত্তরে আলী লারিজানি বলেন, কোনো কোনো ক্ষেত্রে ইউরোপের আচরণ মোটেই ন্যায়সঙ্গত নয়। এ ছাড়া, ইরানকে ইউরোপীয়দের মতো করে ভাবতে হবে এমনও কোনো কারণ নেই। ইরানের পার্লামেন্ট সদস্যদের সঙ্গে ইউরোপীয় পার্লামেন্টের প্রতিনিধিদের আলোচনার পথও রুদ্ধ নয় বরং যেকোনো সময় আলোচনা শুরু হতে পারে।

ইরানের সংসদ স্পিকার ইরাকের সাম্প্রতিক পরিস্থিতি সম্পর্কিত এক প্রশ্নের উত্তরে বলেন, আয়াতুল্লাহ আলী সিস্তানির দিক নির্দেশনায় ইরাক সংকট সমাধানের দিকে অগ্রসর হচ্ছে। এক্ষেত্রে ইরানের কাছে সহযোগিতা চাওয়া হলে তা দিতে তেহরান পুরোপুরি প্রস্তুত রয়েছে।