Advertisements

তিউনিসিয়ায় একটি উচ্চ বিদ্যালয়ের বাইরে গাড়িতে বসে এক পুরুষের ‘হস্তমৈথুনের’ ছবি প্রকাশের পর সেদেশের নারীদের মধ্যে তীব্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। আর সোশ্যাল মিডিয়ায় এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গিয়ে অনেক নারী তাদের নিজেদের যৌন নির্যাতন ও হয়রানির কাহিনী প্রকাশ করছেন আরবিতে ‘এনা জেডা’ হ্যাশট্যাগে। ইংরেজিতে যার মানে হচ্ছে ‘মি-টু।’ সেখান থেকেই তিউনিসিয়ায় শুরু হয়েছে এক অভূতপূর্ব আন্দোলন।

হস্তমৈথুনরত যে পুরুষের ছবি নিয়ে এতো হৈচৈ, তিনি একজন সদ্য নির্বাচিত এমপি জোওহেইর মাখলুফ। তবে গাড়িতে বসে হস্তমৈথুনের কথা অস্বীকার করে মাখলুফ বলছেন, তিনি একজন ডায়াবেটিক রোগী, সে সময় তিনি আসলে একটি বোতলে প্রস্রাব করছিলেন।

কিন্তু এই কথা মানতে মানতে নারাজ বিক্ষুব্ধ নারীরা। তারা ‘এনা জেডা’ লেখা টি-শার্ট পরে পার্লামেন্টের বাইরে বিক্ষোভ করে এ ঘটনার বিচার চেয়েছেন। একজন এমপি হিসেবে জোওহেইর মাখলুফ কিছু নিরাপত্তা পান। কিন্তু তারপরও এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। এমপি জোওহেইর মাখলুফের এই হস্তমৈথুনের ছবিটি তোলেন এক ছাত্রী। তিনি অভিযোগ করেন যে, এই এমপি তাকে হয়রানি করছিলেন।

সূত্র: বিবিসি বাংলা।

By Abraham

Translate »