Advertisements

পশ্চিমা সামরিক জোট ন্যাটোর সম্প্রসারণবাদের সমালোচনা করলেও এর সঙ্গে আঞ্চলিক বিভিন্ন স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে উন্মুক্ত আলোচনায় বসতে প্রস্তুত বলে জানিয়েছেন রুশ  প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। তিনি বলেন, বিভিন্ন ইস্যুতে মিত্রদেরকে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত রাশিয়া।  মঙ্গলবার (৩ ডিসেম্বর) সোচিতে রাশিয়ার কৃষ্ট সাগর রিসোর্টে প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে এক আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন।

১৯৪৯ সালের ৪ এপ্রিল প্রতিষ্ঠিত হয় উত্তর আটলান্টিক নিরাপত্তা জোট ন্যাটো। এটি একটি আঞ্চলিক সামরিক সহযোগিতার জোট। আটলান্টিক মহাসাগরের দুই পাড়ে অবস্থিত উত্তর আমেরিকার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা এবং ইউরোপের অধিকাংশ দেশ এই জোটের সদস্য। বর্তমানে ইউক্রেন সীমান্তের বিচ্ছিন্নতাবাদী, ক্রিমিয়ান উপদ্বীপের অবৈধ সম্প্রচারণ ও পশ্চিমা দেশগুলোর নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপসহ বেশ কিছু ইস্যুতে ন্যাটোর সঙ্গে বিরোধ রয়েছে মস্কোর।

স্নায়ু যুদ্ধ শেষ হয়েছে উল্লেখ করে মঙ্গলবার রুশ প্রেসিডেন্ট পুতিন বলেন, ন্যাটোর পূর্বদিকের সম্প্রসারণকে জাতীয় সার্বভৌমের জন্য হুমকি মনে করে রাশিয়া। তবে মস্কোর আশা, মিত্ররা আলোচনায় ফিরবে এবং এতে ইউরোপের নিরাপত্তাসংশ্লিষ্ট স্বার্থ রয়েছে।

পুতিন আরও বলেন, ‘আধুনিক বিশ্বের দ্রুত পরিবর্তিত পরিস্থিতিতে কার্যকর সিদ্ধান্ত নেওয়ার ক্ষেত্রে বাঁধাধরা নিয়ম সহায়ক নয়। একই সঙ্গে আমরা ন্যাটোকে সহযোগিতা করার এবং আন্তর্জাতিক সন্ত্রাসবাদ, স্থানীয় সশস্ত্র সংঘাত ও মারাত্মক বিধ্বংসী অস্ত্রের অনিয়ন্ত্রিত বিস্তারলাভের বিপদের মতো পরিচিত বাস্তব হুমকির বিরুদ্ধে লড়াই করার বিষয়ে প্রস্তুতির কথা জানিয়েছি।’

ন্যাটো প্রসঙ্গে পুতিন বলেন, ‘সোভিয়েত ইউনিয়নকে মোকাবিলা করতে স্নায়ু যুদ্ধের শুরুতে ন্যাটো প্রতিষ্ঠিত হয়। তবে এখন সোভিয়েত ইউনিয়ন বা ওয়ারশ চুক্তি নেই। তবে বহাল তবিয়তে আছে ন্যাটো এবং এর উন্নয়ন চলছে।’

By Abraham

Translate »