জানাঅজানা

ঝরনার পানি খেয়ে বিপাকে, গলা থেকে বের হলো জোঁক

Advertisements

কিছু দিন ধরে কাশি হচ্ছিল। ওষুধ খেয়েও ঠিক হচ্ছিল না। অবশেষে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর রোগীর নাক থেকে যা বের হয়েছে, সেটা দেখে অবাক চিকিত্সকরা। চীনের ফুজিয়ান প্রদেশের উইপিং এলাকায় দুই মাস ধরে কাশির সমস্যায় ভুগছিলেন এক ব্যক্তি।

অবশেষে চিকিত্সার জন্য স্থানীয় উইপিং কাউন্ট হাসপাতালে যান তিনি। প্রাথমিক পর্যবেক্ষণের পর তাকে শ্বাসনালীর চিকিত্সা সংক্রান্ত বিভাগে পাঠানো হয়। সেখানে প্রাথমিক একটি সিটি স্ক্যান করা হয়। কিন্তু অস্বাভাবিক কিছু পাওয়া যায়নি। পরে ফুসফুস ও শ্বাস-প্রশ্বাস যন্ত্রের পরীক্ষা শুরু হয়। তখন ধরা পড়ে আসল সমস্যা।

পরীক্ষায় দেখা যায়, নাকের ভেতর ও গলায় বসে আছে দু’টি জ্যান্ত জোঁক। ডেইলি মেইলের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, দুই জোঁকের মধ্যে একটির দৈর্ঘ্য প্রায় তিন সেন্টিমিটার (১.২ ইঞ্চি)। জোঁক দু’টি বের করার আগে রোগীকে লোকাল অ্যানাস্থেসিয়া দেওয়া হয়। তারপর বের করে আনা হয় জোঁক দু’টি।

কিন্তু, কিভাবে দু’টি জোঁক এভাবে নাকের এত ভিতরে আর গলা পর্যন্ত পৌঁছে গেল তা রোগী বা চিকিত্সক কেউই নিশ্চিত করে বলতে পারছেন না। তবে রোগীর সঙ্গে কথা বলার পর চিকিত্সকদের ধারণা, পাহাড়ি ঝরনা থেকে পানি খাওয়ার সময় কোনোভাবে ঢুকে গিয়েছিল, বুঝতে পারেননি ওই ব্যক্তি।

আসলে জোঁকগুলো যখন পানির সঙ্গে ঢুকে পড়ে তখন সেগুলো এতই ছোট ছিল যে বোঝা যায়নি। ভিতের গিয়ে রক্ত খেতে খেতে বড় হয়ে গেছে। আর ওই ব্যক্তির সমস্যা শুরু হয়। জোঁক দুটি বের করে দেওয়ার পর এখন ওই ব্যক্তি ধীরে ধীরে সুস্থ হয়ে উঠছেন।