Advertisements

জুয়াড়ির প্রস্তাব গোপন রাখায় সাকিব আল হাসানকে দুই বছর সব ধরনের ক্রিকেটে নিষিদ্ধ করেছে আইসিসি। তবে তিনি দায় স্বীকার করে নেয়ায় এক বছর নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করা হয়েছে। যে কারণে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের বিশেষ আসর বঙ্গবন্ধু বিপিএলে খেলতে পারছেন না তিনি।

পরিপ্রেক্ষিতে বিপিএলের সপ্তম আসর শুরুর আগেই সতর্ক হয়ে যায় বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। প্রেসিডেন্ট নাজমুল হাসান পাপন জানান, সাকিবকাণ্ডের পর ক্রিকেট মাঠে ফিক্সিং ও দুর্নীতি রোধে আরও সোচ্চার ও সতর্ক হয়েছেন তারা। যাতে বাংলাদেশের কোনো খেলায় ফিক্সিংয়ের কালো থাবা না পড়ে।

কিন্তু এবারের বিপিএলে প্রথম ম্যাচেই ঘটে বিস্ময়কর ঘটনা। অদ্ভুত দুই ওয়াইড ও নো বল করে কৌতূহলের জন্ম দেন সিলেট থান্ডারের ক্যারিবীয় পেসার ক্রিসমার সান্তোকি, যা দেখে অনেকে সরাসরি বলছেন, এটি নিশ্চিত ফিক্সিং। শুধু সাধারণ ক্রিকেটপ্রেমীরাই নন, খোদ বিসিবির দল পরিচালক তানজীল চৌধুরীর মনেও এ নিয়ে সংশয় জেগেছে।

হোম অব ক্রিকেট মিরপুরে উদ্বোধনী ম্যাচে প্রথমে ব্যাট করে ১৬২ রান করে সিলেট। জবাবে ব্যাট করে চট্টগ্রাম চ্যালেঞ্জার্স। দ্বিতীয় ওভারে বোলিংয়ে আসেন সান্তোকি। তার করা তৃতীয় ডেলিভেরি লেগ স্টাম্পের অনেক বাইরে দিয়ে চলে যায়। বামপ্রান্তে ঝাঁপিয়ে বলটি গ্লাভসবন্দি করেন উইকেটরক্ষক মোহাম্মদ মিঠুন।

অনেক বড় এই ওয়াইড অবশ্য সবার নজরবন্দি হয়নি। কারণ ক্রিকেটে এমন ওয়াইড হতেই পারে। কিন্তু একই ওভারে সান্তোকির করা পঞ্চম ডেলিভেরিটি কৌতূহল জাগিয়েছে। এটি করতে গিয়ে পপিং ক্রিজের এক ফুটেরও দূরে পা ফেলেন তিনি, যা স্মরণ করিয়ে দেয় ২০১০ সালে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে মোহাম্মদ আসিফ, মোহাম্মদ আমিরদের করা নো বলের কথা। যে কারণে দীর্ঘদিন সব ধরনের ক্রিকেটে নিষিদ্ধ ছিলেন তারা।

অবশ্য ম্যাচের পর পরই বিষয়টি তদন্ত করে দেখার জন্য মৌখিক অনুরোধ জানিয়ে রেখেছেন তানজিল। বিসিবির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা নিজামউদ্দিন চৌধুরী এবং সংস্থার দুর্নীতি দমন শাখার দায়িত্বে থাকা মেজর (অব.) হুমায়ুন মোর্শেদের কাছে অভিযোগ দিয়েছেন তিনি।

সিলেট থান্ডারের স্পন্সর জিভানি ফুটওয়্যার। তারাই মূলত সান্তোকিকে দলে নিয়েছে। এর সঙ্গে উভয়ই জড়িত থাকতে পারে।

তানজিল বলেন, সান্তোকির মতো কিছু খেলোয়াড়কে স্পন্সররাই নিয়েছে। এজেন্টদের সঙ্গে তারাই যোগাযোগ করেছে। সে এমন একটি নো বল করেছে, যেটি খুবই সন্দেহজনক। আমি স্পন্সরদের কাছে জানতে চেয়েছিলাম, আপনারা প্রথম একাদশ গড়া নিয়ে কোনো ধরনের হস্তক্ষেপ করেছেন কিনা। উনারা বলেছেন ‘না’। এখন টিম ম্যানেজমেন্টের সঙ্গে কথা বলতে হবে। জানতে হবে তাকে খেলানোর বিষয়ে কেউ তাদের প্রভাবিত করেছে কিনা। কারণ এই ছেলেটি তো মনে হচ্ছে স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িত।

By Abraham

Translate »