Advertisements

রাজাকারের তালিকায় মুক্তিযোদ্ধাদের নাম আসায় দুঃখপ্রকাশ করেছেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

মঙ্গলবার সকালে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির  সংগীত, আবৃত্তি ও নৃত্যকলা মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে তিনি এ দুঃখ প্রকাশ করেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষে মুক্তিযোদ্ধা, অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সুপার নুরুল ইসলাম খান রচিত ‘মুক্তিযুদ্ধ এবং আমি’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচনের পর তিনি এ কথা বলেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘ভুলের পরিমাণ বেশি হলে রাজাকারের তালিকা প্রত্যাহার করা হবে। আর ভুলের পরিমাণ কম হলে ভুলবশত যাদের নাম এ তালিকায় এসেছে, সেগুলো প্রত্যাহার করা হবে।’ আ ক ম মোজাম্মেল হক বলেন, ‘স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে যা পেয়েছি তাই প্রকাশ করা হয়েছে। একাত্তরে প্রস্তুত করা তালিকাটিতে পাকিস্তানি বাহিনী মুক্তিযোদ্ধাদের নাম সংযোজন করে থাকতে পারে। তবে তালিকায় যে ভুলগুলো আছে, আমরা তা পরবর্তীতে সংশোধন করে নেব। অনিচ্ছাকৃত এ ভুলের জন্য আমি দুঃখ প্রকাশ করছি।’ উল্লেখ্য, এর আগে গত রোববার (১৫ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে বাংলাদেশের স্বাধীনতার বিরোধিতাকারী রাজাকারদের আংশিক তালিকা প্রকাশ কর হয়। মন্ত্রণালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রথম পর্যায়ে ১০ হাজার ৭৮৯ জনের তালিকা প্রকাশ করেন মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক।

By Abraham

Translate »