Advertisements

বলিউডের তারকারা অবশেষে মুখ খুলেছেন একে একে। সিএএ-এর প্রতিবাদে ভারতে আন্দোলন তীব্রতর আকার নিয়েছে। কোথাও মিটিং-মিছিল আবার কোথাও শান্তিপূর্ণভাবে অবস্থান বিক্ষোভ করছেন সাধারণ মানুষ থেকে জনপ্রতিনিধিরা। বলিউডের একাধিক তারকা থেকে বুদ্ধিজীবীরা সকলেই পথে নেমেছেন সিএএ-এর প্রতিবাদে।

আসামে পাপন ও জুবিন গর্গ থেকে শুরু করে মুম্বাইতে ফারহান আখতার ও পরিচালক মহেশ ভাট সকলেই রাস্তায় নেমে প্রতিবাদ করছেন এই আইনের বিরুদ্ধে। অনেক তারকা রাস্তায় না নামলেও সোশ্যাল মিডিয়াতে প্রতিবাদ করেছেন। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন দিয়া মির্জা।
তিনি টুইটের মাধ্যমে অভিনব প্রতিবাদ করে জানিয়েছেন, ‘আমার মা হিন্দু, জন্মদাতা বাবা খ্রিস্টান, দত্তক যিনি নিয়েছিলেন তিনি মুসলিম। সরকারিভাবে আমার নামে যে কাগজপত্র আছে আমার ধর্মের জায়গাটা ফাঁকা রয়েছে। আমি কি ভারতীয়? আপনারাই বলুন একজন ভারতীয় হতে কী ধর্ম লাগে? কোনও দিনও ধর্ম দিয়ে কিছু বোঝা যায় না।’

তার এই টুইটের জন্য আপাতত তিনি সোশ্যাল মিডিয়াতে ট্রলড হচ্ছেন। এদিকে ভারতে সংসদের উভয় কক্ষে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পাস হওয়ার পর ভারতের রাষ্ট্রপতি এই বিলকে সই করে আইনে পরিণত করেছেন। তারপর থেকে দেশের নানা প্রান্তে শুরু হয়েছে বিক্ষোভ। পশ্চিমবঙ্গ, আসাম, ত্রিপুরা, মুম্বাই, কেরালা, দিল্লি ও বেঙ্গালুরু।

রাস্তায় নেমে মানুষ প্রতিবাদ জানিয়েছেন সিএএ-এর বিরুদ্ধে। এদিকে, গত রবিবার দিল্লির জামিয়া ইসলামিয়া বিশ্ববিদ্যালয় পড়ুয়ারা শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ দেখালে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে ছাত্র-ছাত্রীদের। যার জন্য গোটা ভারত তথা বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ুয়ারা প্রতিবাদ জানিয়েছেন। এই বিষয়ে নিয়েও পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন অভিনেত্রী দিয়া মির্জা।

সূত্র : টাইমস নাউ।

By Abraham

Translate »