Advertisements

কিছুদিন হল বিয়ে করেছেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায় ও বাংলাদেশ অভিনেত্রী, সমাজকর্মী রাফিয়াত রশিদ মিথিলা। বিয়ের পর জামাই শ্বশুরবাড়িতে যাবেন না তাও যেমন হয় না, তেমনি জামাই আদরও হবে না সেটাও হয়না। শ্বশুরবাড়িতে জামাই সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের আপ্যায়ন কিছু কম হল না। হল জমিয়ে খাওয়া-দাওয়াও।

শ্বশুরবাড়িতে সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের পাতে কী না ছিল না! খাওয়া দাওয়ার মেনুতে ছিল লম্বা তালিকা। সাদা ভাত, আলু ভাজা, শুঁটকি, ডাল, কড়াইশুঁটি দিয়ে পাবদা মাছ, মুরগির ঝোল আর বাঁধাকপি দিয়ে গরুর মাংস। ফেসবুকে এই মেনুর নিজেই পোস্ট করেছেন পরিচালক। সঙ্গে রয়েছে ছবি। যা দেখে হয়তবা অনেকেই লোভ সামলাতে পারবেন না। তবে পরিচালকের এই পোস্টই আবার বিতর্কের তৈরি করেছে।

টুইটারে নিজের এই পোস্টের জন্য আক্রমণের মুখেও পড়তে হয়েছে পরিচালককে। অনেকেই পরিচালককে আক্রমণ করে নানান কথা লিখেছেন, কেউ লিখেছেন, ‘হিন্দু নামে কলঙ্ক আপনি। আপনাকে খুব সম্মান করতাম। কিন্তু এই পোস্ট টা পরার পর থেকে আপনাকে এখন খুব ঘৃণা করি, আপনি হিন্দু ধর্ম ত্যাগ করুন।’ কেউ আবার প্রশ্ন করেছেন, আপনি কি ব্রাহ্মণ? মুখার্জি পদবীটা কেন ব্যবহার করছেন?

তবে এদের টুইটের পাল্টা জবাব বেশ কড়া ভাষাতেই দিয়েছেন পরিচালক। জবাবে সৃজিত মুখোপাধ্যায় লিখেছেন, ‘হিন্দু ধর্ম নিয়ে কথা আপনার মতো অশিক্ষিতের মুখে বেমানান। ঋগ্বেদ, মনুস্মৃতি ও গৃহসূত্রের কিছু শ্লোক দেব খাওয়া দাওয়া নিয়ে। রোজ সকালে কান ধরে ছাদে দাঁড়িয়ে মুখস্থ করবেন। ভদ্রভাবে বোঝালাম, নয়তো মনে রাখবেন বাইশে শ্রাবণ-এর সংলাপ কিন্তু আমারই লেখা’।

প্রসঙ্গত, গত ৬ ডিসেম্বর নিজের দক্ষিণ কলকাতার বাড়িতে ছোটখাটো অনুষ্ঠানের মাধ্যমে বিবাহ-বন্ধনে আবদ্ধ হন সৃজিত-মিথিলা।

By Abraham

Translate »