আন্তর্জাতিক

ইন্দোনেশিয়ায় বাস দুর্ঘটনায় নিহত ২৫

Advertisements

ইন্দোনেশিয়ায় বাস দুর্ঘটনায় কমপক্ষে ২৫ জন নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ১৪ জন। গতকাল সোমবার মধ্যরাতে দক্ষিণ সুমাত্রা প্রদেশে পাগার আলাম শহরের দুর্গম পাহাড়ি এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। বেশ কয়েকজন যাত্রী নিয়ে বাসটি সড়ক থেকে ৫০০ ফুট নিচে নদীতে পড়ে যায়।

আজ মঙ্গলবার বার্তা সংস্থা এএফপির খবরে বলা হয়, শুরুতে পুলিশ মৃতের সংখ্যা ২৪ জন বলে উল্লেখ করে। তবে স্থানীয় উদ্ধারকারী দলের প্রধান বেরতি কোয়াস বলেন, পরে আরেকজনের মৃতদেহ উদ্ধার করা হয়। তা নিয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ায় ২৫ জনে।

এএফপির খবরে জানা যায়, মেট্রো টিভিকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে কোয়াস বলেন, উদ্ধার অভিযান চলছে। বাসের চারপাশে আর কেউ রয়েছেন কি না, সে সন্ধান চালাচ্ছেন কয়েকজন ডুবুরি। উদ্ধার অভিযানের ভিডিওতে দেখা গেছে, পানি থেকে তোলা মরদেহ স্ট্রেচারে করে নেওয়া হচ্ছে।

পুলিশ এবং উদ্ধারকারীরা নদী ও আশপাশের ঢালে নিখোঁজ যাত্রীদের খোঁজে অভিযান চালাচ্ছেন। কয়েকজন যাত্রী নিখোঁজ থাকার আশঙ্কা করা হচ্ছে।

উদ্ধার তৎপরতায় উদ্ধারকারী দল। ছবি: পালেমবাং সার্চ অ্যান্ড রেসকিউ এজেন্সির ইনস্টাগ্রাম থেকেউদ্ধার তৎপরতায় উদ্ধারকারী দল। ছবি: পালেমবাং সার্চ অ্যান্ড রেসকিউ এজেন্সির ইনস্টাগ্রাম থেকে

এএফপিকে স্থানীয় পুলিশের মুখপাত্র ডলি গুমারা বলেন, সড়ক প্রতিবন্ধকের সঙ্গে ধাক্কা খেয়ে বাসটি খাদে পড়ে যায়। বাসের ভেতর এখনো কেউ কেউ আটকে আছেন। আহত যাত্রীদের হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে।

দুর্ঘটনাস্থলটি দুর্গম ও পাহাড়ি এলাকা হওয়ায় উদ্ধারকাজ ব্যাহত হচ্ছে।

বেংকুলু প্রদেশ থেকে পাগার আলামের উদ্দেশে বাসটি ২৭ জন যাত্রী নিয়ে রওনা দিলেও বেঁচে যাওয়া কয়েকজন যাত্রী পুলিশকে জানিয়েছেন, দুর্ঘটনার সময় বাসে ৫০ জনের মতো যাত্রী ছিলেন। গুমারা বলেন, সম্ভবত পথে অন্য যাত্রীদের তোলা হয়েছিল। সে ক্ষেত্রে আরও যাত্রী নদীতে নিখোঁজ থাকার আশঙ্কা রয়েছে।