Advertisements

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সহসভাপতি (ভিপি) নুরুল হক ও অন্যান্যদের ওপর হামলায় জড়িতদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে জানিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, তাঁর (নুরের) ওপর কেন বারবার হামলা করা হচ্ছে তা সরকার খতিয়ে দেখবে।

আজ মঙ্গলবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারে ওয়াসা ভবনে সোভিয়েত অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের এক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা সবাই জানেন এ ঘটনায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। এরই মধ্যে কয়েকজনকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন, এদের মধ্যে যারা অভিযুক্ত এবং যাদের ঘটনায় দেখা গেছে তাদের অবশ্যই গ্রেপ্তার করা হবে।

গত রোববার দুপুরে রড, লাঠি ও বাঁশ নিয়ে ভিপি নুরুলের ওপর হামলা চালান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের একাংশের নেতা-কর্মীরা। এ সময় নুরুলের সঙ্গে থাকা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় ও কয়েকটি কলেজের কিছু ছাত্রসহ অন্তত ৩০ জন আহত হন।

ঘটনার প্রায় ৪৫ মিনিট পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর এ কে এম গোলাম রব্বানী নুরুলসহ আহত ছাত্রদের ডাকসু ভবন থেকে উদ্ধার করে সবাইকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।
তাঁদের মধ্যে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের নেতা তুহিন ফারাবীর অবস্থা গুরুতর। তাঁকে কৃত্রিম শ্বাসপ্রশ্বাস ব্যবস্থায় রাখা হয়েছিল। গতকাল শারীরিক অবস্থার উন্নতি হলে তাঁকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) নিয়ে আসা হয়।

এদিকে, গায়েব হয়ে গেছে ডাকসু ভবনের সব কটি সিসিটিভির ফুটেজ। যে কম্পিউটারে ফুটেজ ছিল, হামলার ঘটনার সময় কে বা কারা তা নিয়ে গেছে।

হামলার পর সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের জানান, ডাকসু ভিপি নুরুল ও অন্যদের ওপর হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রধানমন্ত্রীর এ নির্দেশের পর নড়েচড়ে বসেছে পুলিশ ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। হামলার ঘটনায় অভিযুক্ত দুজনকে গতকাল আটক করেছে পুলিশ। আর বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ঘটনা তদন্তে ছয় সদস্যের তদন্ত কমিটি করেছে।

গত রোববারের হামলার ঘটনায় আজ মঙ্গলবার পুলিশ বাদী হয়ে রাজধানীর শাহবাগ থানায় মামলা করে। ঘটনার সময় ধারণকৃত বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজ ও গণমাধ্যমে আসা সংবাদের ভিত্তিতে আসামিদের শনাক্ত করা হয়েছে। মামলায় ৭-৮ জনের নাম উল্লেখ করা হয়েছে। এর বাইরে অজ্ঞাতনামা আসামি রয়েছেন।

By Abraham

Translate »