Advertisements

ডাকসু ভিপি ও তার সমর্থকদের ওপর রোববারের হামলার ঘটনার পেছনে কয়েকদিনের রেষারেষির চিত্র ভাসছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। ডাকসুর এজিএসের দাবি, অতর্কিতে ঘটেনি এ হামলা। এদিকে আহতরা সবাই সুস্থ জানিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক জানিয়েছেন, শিগগিরই তাদের হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হবে।

রোববার ডাকসু ভিপি নুরুল হক ও তার সমর্থকদের ওপর হামলা নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে উঠে আসছে নানা মত। সম্প্রতি নূর ও তার সমর্থকদের হাতে লাঞ্চনার শিকার হন মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের এক নেতা। আর তারই জেরে রোববারের ঘটনা ঘটে বলে দাবি ডাকসুর এজিএসের।

ডাকসুর এজিএস সাদ্দাম হোসাইন বলেন, রাজু ভাস্কর্যের সামনে মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের আরেক পক্ষের নেতা আমিনুল ইসলাম বুলবুলকে মারার ভিডিও কিন্তু আমরা দেখেছি গণমাধ্যমে। অতএব এটি দুপক্ষের বিবাদ থেকে একটি সংঘাতের ঘটনা।

এদিকে, ক্ষমতাসীন দলের নেতা বলছেন, বহিরাগতদের কারণেই বার বার ক্যাম্পাসের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহারউদ্দিন নাছিম বলেন, বাংলাদেশের সব অর্জনের সাথে সম্পর্ক রয়েছে এই বিশ্ববিদ্যালয়ের। বিশ্ববিদ্যালয় প্রাঙ্গণে সবাই এক সাথে মিলিত হয়ে মুক্তিযুদ্ধে চেতনা থেকে শুরু করে সব কর্মসূচি পালন করবে, সেখানে থাকবে শান্তি। সেই শান্তিই নষ্ট করতে চাচ্ছে এই অপশক্তি। আর এই অশক্তিকেই আমি তৃতীয় শক্তি হিসেবে চিহ্নিত করতে চাই।

যদিও সাবেক এই ছাত্রনেতা বললেন, দেশের সব শিক্ষার্থীরই প্রতিনিধিত্ব করেন ডাকসুর ভিপি।

জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু বলেন, তিনি যেহেতু ছাত্র প্রতিনিধি, সুতরাং যে কোন ছাত্রের সঙ্গে তিনি কথা বলতে পারেন, এটা তার অধিকার।

এদিকে নুরসহ আহতরা সবাই সুস্থ আছেন জানিয়ে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক বলেছেন, শিগগিরই তাদের হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেয়া হবে।

ঢামেক পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল এ কে এম নাসির উদ্দিন বলেন, তাদের দুই চারটা জায়গায় কিছুটা সমস্যা রয়েছে। সেগুলো এক্সরে করার জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে। এবং কিছু টেষ্ট করার পরামর্শ দিয়েছে চিকিৎসকরা। সেই অনুযায়ী আমরা তাদের সার্বিক চিকিৎসা দেবো।

হামলার ঘটনায় ৮ জনকে আসামী করে শাহবাগ থানায় মামলা করেছে পুলিশ। গ্রেফতারকৃতদের মধ্যে তিনজনকে তিন দিন করে রিমান্ডে দিয়েছেন আদালত।

সূত্র: সময় নিউজ

By Abraham

Translate »