Advertisements

নতুন বছরে বড় চমক সরকারের। নিয়ম মেনে বিয়ে করলেই সম্পূর্ণ বিনামূল্যে পাওয়া যাবে ১০ গ্রাম সোনা। বাল্যবিবাহ রুখতে এমনই অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে ভারতের আসাম সরকার।

সূত্রের খবর, আসাম সরকার ২০২০ সালের ১ জানুয়ারিতে একটি স্কিম চালু করছে। প্রকল্পটির নাম দেয়া হয়েছে ‘অরুন্ধতী স্বর্ণ যোজনা’।

এই প্রকল্পের মাধ্যমে নববধূদের সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ১০ গ্রাম সোনা দেবে আসাম সরকার। উপহার হিসেবে দেয়া হবে এই স্বর্ণ।

তবে আসামের নাগরিকদের জন্যই এই নিয়ম প্রযোজ্য। এছাড়া কিছু শর্ত মেনে বিয়ে করতে হবে। সে ক্ষেত্রে পাত্রীকে অবশ্যই দশম শ্রেণি পাস হতে হবে। এবং বয়স হতে হবে ১৮ বছরের উপরে। সামাজিকভাবে বিয়ে করতে হবে। খবর কলকাতা ২৪’র।

পাশাপাশি আইনিভাবেও অর্থাৎ রেজিস্ট্রি করতে হবে। সেই নথি দেখিয়ে পাত্রীর পরিবারকে ‘অরুন্ধতী স্বর্ণ যোজনা’ প্রকল্পে রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

পাত্রীর পারিবারিক বার্ষিক আয় পাঁচ লাখ টাকার কম হতে হবে। তবে ‘অরুন্ধতী স্বর্ণ যোজনা’র সুবিধা কেবল মেয়ের প্রথম বিয়ের ক্ষেত্রেই পাওয়া যাবে।

অর্থাৎ কোনো কারণে প্রথম বিয়ে ভেঙে গেলে দ্বিতীয় বিয়ের ক্ষেত্রে এই স্কিমের সুবিধা পাওয়া যাবে না।

তবে আসাম সরকার নববধূর জন্য যে ১০ গ্রাম সোনা বরাদ্দ করে থাকে। সেই সোনা তাকে দেয়া হবে না। সোনার পরিবর্তে পাত্রীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে দেয়া হবে ৩০ হাজার টাকা।

কিন্তু ওই টাকা অন্য কোনো খাতে ব্যবহার করা যাবে না। পাত্রীর পরিবারকে সরকারের দেয়া টাকা দিয়ে সোনার গয়না কিনতে হবে। তারপর সেই বিল জমা দিতে হবে সরকারের ঘরে।

মূলত বাল্যবিবাহ রুখতেই এমন অভিনব উদ্যোগ নিয়েছে আসাম সরকার। যদিও রাজ্যের নববধূদের ১০ গ্রাম স্বর্ণ দেয়ার কথা গত নভেম্বরেই ঘোষণা করেছিল আসাম সরকার।

এমনকি ‘অরুন্ধতী স্বর্ণ যোজনা’ প্রকল্পটির নাম দিয়েছেন আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনোয়াল। এবার এই প্রকল্পটি নতুন বছরের জানুয়ারি থেকেই চালু করতে চাইছে আসাম সরকার।

By Abraham

Translate »