Advertisements

জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচ, ৩৮ বছরের সুইডিশ তারকা। তবে বয়সকে বুড়ো আঙ্গুল দেখিয়ে ফুটবল মাঠে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন আপন গতিতে। মেজর লিগ সকারে লস অ্যাঞ্জেলেস গ্যালাক্সির হয়ে ৫৬ ম্যাচে করেছেন ৫২ গোল। ২০১৯ সালে বিদায় বলেছেন মেজর লিগ সকারকে।

এরপর বিভিন্ন ক্লাবে যুক্ত হওয়ার গুঞ্জন থাকলেও ইব্রা চেয়েছেন ইতালিতে ফিরতে। সাবেক ক্লাব এসি মিলানে খেলতে। অবশেষে ছয় মাসের চুক্তিতে ইব্রাকে ফিরিয়েছে এল রোজ্জোনেরিরা। চুক্তিতে বলা হয়েছে দু’পক্ষ চাইলে আরেক বছর থাকবেন ইব্রাহিমোভিচ।

শুক্রবার দলটির সঙ্গে যুক্ত হয়েছেন সাবেক এই সুইডিশ ফুটবলার। আর এসেই স্বভাবসুলভ ভঙ্গিতে নিজের জানান দিলেন ইব্রাহিমোভিচ, ‘আমি এখানে রোজ্জোনেরিদের মাসকট হতে আসিনি। এসি মিলানের প্রতি আমার প্যাশন সবসময় দুর্দান্ত। আমি জানি আমার কি করা দরকার। ইব্রা এখন এখানে আছে।’

২০১০-১২ মৌসুমে এসি মিলানের হয়ে মাঠ মাতিয়েছেন ইব্রাহিমোভিচ। ৬১ ম্যাচে করেছেন ৪২ গোল। ইব্রা থাকাকালিন ২০১১ সালে সর্বশেষ মেজর কোনো শিরোপা জিতে ‘এল রোজ্জোনেরিরা’। তখন কেন এসি মিলান ছাড়লেন এখন কেনই বা ফিরে আসার সিদ্ধান্ত নিলেন জানতে চাইলে ইব্রাহিমোভিচ বলেন, ‘শেষবার আমার ইচ্ছার বিরুদ্ধে এখান থেকে চলে যেতে হয়েছে। তখন বিষয়টি ছিল সম্পূর্ণ অর্থনৈতিক। আমি নিজেকে চূড়ায় দেখার জন্য এখানে ফিরেছি। নিজেকে প্রাণবন্ত, খুশি রাখার জন্য এসেছি।’

চলতি মৌসুমে এসি মিলান পয়েন্ট তালিকার ১১তম স্থানে আছে। ১৭ ম্যাচে দলটির সংগ্রহ মাত্র ২১ পয়েন্ট। এমন অবস্থায় দল নিয়ে কি ভাবছেন? এমন প্রশ্নে ইব্রাহিমোভিচ নিজের ভঙ্গিতে বললেন, ‘দলের জন্য গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো, আমি এখন এখানে এসেছি। এখন দলের যতটা সম্ভব উন্নতি করব।’

এসি মিলান ছাড়া আর কোন কোন ক্লাব থেকে প্রস্তাব এসেছে সে বিষয়ে কিছু বলতে চাননি ইব্রাহিমোভিচ। তবে বুড়িয়ে গেলেও ইব্রার কদর কোনো অংশে কমেনি জানিয়ে এই সুইডিশ তারকা বলেন, ‘ আটালান্টা ম্যাচে এসি মিলান যত গোল খেয়েছে আমি এর চেয়ে বেশি দল থেকে প্রস্তাব পেয়েছি। আর ৩৮ বছর বয়সে এসে আমি ২০ বছর বয়সের চেয়েও বেশি প্রস্তাব পেয়েছি নভেম্বরের পর থেকে।’ উল্লেখ্য, আটালান্টার বিপক্ষে এসি মিলান ৫-০ গোলে হেরেছিল।

By Abraham

Translate »