Advertisements

ফরেনসিক পরীক্ষায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীকে ধর্ষণের আলামত পাওয়ার কথা জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। সোমবার দুপুরে ঢাকা মেডিকেল কলেজের ফরেনসিক বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহযোগী অধ্যাপক সোহেল মাহমুদ এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ফরেনসিক পরীক্ষায় মেয়েটিকে ধর্ষণের আলামত পাওয়া গেছে। তার গলা, হাত, গালসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। সারা পায়ে খোঁচা লাগার দাগ রয়েছে। মেয়েটির গলায় ধর্ষণকারীর হাতের চিহ্ন দেখা গেছে। বোঝা গেছে, ধর্ষণকারী তার গলা টিপে ধরেছিল।

এই চিকিৎসক জানান, কিছু আঘাত হয়েছে ধর্ষণকারীর দ্বারা। আর কিছু হয়েছে ঝোপের কারণে। ঘটনাটি ঝোপের মধ্যে হওয়ায় তার পায়ে আঘাত লেগেছে।

ডা. সোহেল মাহমুদ বলেন, ধর্ষণ একজন করেছে, নাকি একাধিক ব্যক্তি করেছে তা নিশ্চিত হতে নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষাগারে পাঠানো হয়েছে।

রবিবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে করে বান্ধবীর বাসায় যেতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হন ঐ ছাত্রী। বান্ধবীর বাসা শেওড়া হলেও ভুল করে তিনি কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের সামনে বাস থেকে নেমে যান।

আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী জানায়, বিমানবন্দর সড়কে কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালের কাছে গলফ ক্লাব সীমানার শেষ প্রান্তে ঝোপের মধ্যে মেয়েটিকে ধর্ষণ করা হয়।

By Abraham

Translate »