Advertisements

ইরানে বিধ্বস্ত ইউক্রেনের উড়োজাহাজের ব্ল্যাক বক্স নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং কিংবা যুক্তরাষ্ট্রকে না দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে তেহরান।

বুধবার সকালে তেহরানের ইমাম খোমেনি বিমানবন্দর থেকে উড্ডয়নের কিছুক্ষণ পরই ১৭৬ জন আরোহী নিয়ে ইউক্রেইন ইন্টারন্যাশনালের ফ্লাইট পিএস৭৫২ বিধ্বস্ত হয়। এতে উড়োজাহাজে থাকা সব আরোহী নিহত হন।

দুর্ঘটনায় পড়া উড়োজাহাজের ব্ল্যাক বক্সের তথ্য বিশ্লেষণে নির্মাতা কোম্পানিগুলো যুক্ত থাকে, আর খুব অল্প দেশেরই ব্ল্যাক বক্সের তথ্য বিশ্লেষণ করার সক্ষমতা আছে বলে বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন। খবর বিবিসির।

আন্তর্জাতিক বিমান পরিবহন আইন অনুযায়ী এই তদন্তে নেতৃত্ব দেওয়ার অধিকার ইরানের আছে।

তবে বৃহস্পতিবার দেশটি জানিয়েছে, উড়োজাহাজের ব্ল্যাক বক্স নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বা যুক্তরাষ্ট্রকে দেবে না তারা।

দুর্ঘটনায় পড়া উড়োজাহাজটি মার্কিন বিমান নির্মাতা কোম্পানি বোয়িংয়ের তৈরি ৭৩৭-৮০০ মডেলের ছিল।

যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে প্রবল উত্তেজনার মধ্যে ইউক্রেইনীয় উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হয়।

যুক্তরাষ্ট্রে তৈরি হওয়া বোয়িংয়ের কোনো দুর্ঘটনার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক তদন্তে মার্কিন ন্যাশনাল ট্রান্সপোর্ট সেইফটি বোর্ড একটি ভূমিকা পালন করে থাকে। কিন্তু মার্কিন সেইফটি বোর্ডকে সংশ্লিষ্ট বিদেশি রাষ্ট্রের আইন মেনে তাদের অনুমতি নিয়ে তদন্তে অংশ নিতে হয়।

ইরানের বেসামরিক বিমান চলাচল সংস্থার (সিএও) প্রধান আলী আবেদজাদেহ বলেছেন, ‘নির্মাতা কোম্পানি এবং মার্কিনিদের কাছে ব্ল্যাক বক্স দেব না আমরা। ইরানের বিমান চলাচল সংস্থাই ঘটনার তদন্ত করবে, তবে ইউক্রেইনীয়রা সঙ্গে থাকতে পারবে।’

নির্মাতা প্রতিষ্ঠান বোয়িং জানিয়েছে, দরকার হলে তারা সাহায্য করার জন্য প্রস্তুত আছে।

ইউক্রেইন এয়ারলাইন্সের কমকর্তারা জানিয়েছেন, উড়োজাহাজটি বিধ্বস্ত হওয়ার সময় আকাশ পরিষ্কার ছিল।

এদিকে উড়োজাহাজ বিধ্বস্তের জন্য কারিগরি সমস্যাকে দায়ী করেছে ইরান।

By Abraham

Translate »