আইন-আদালত

ধর্ষণের শিকার ঢাবি ছাত্রীর আদালতে জবানবন্দি

Advertisements

ধর্ষণের ঘটনায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে (ঢাবি) ছাত্রী আদালতে জবানবন্দি দিয়েছেন। শুক্রবার ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালত (সিএমএম) ওই শিক্ষার্থীর জবানবন্দি রেকর্ড করেন।

আদালত সূত্র বলছে, মামলার তদন্ত সংস্থা ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি) ওই ছাত্রীকে আদালতে হাজির করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ২২ ধারায় জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন করে। আদালত অনুমতি দিলে, ওই ছাত্রী সেদিন যা যা ঘটেছিল তা সবিস্তারে বলেন।

এর আগে বৃহস্পতিবার এই ধর্ষণ মামলায় গ্রেপ্তার মজনুকে সাত দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেন ঢাকার সিএমএম আদালত। আসামি মজনু ডিবি হেফাজতে রয়েছেন।

 পুলিশের পক্ষ থেকে আদালতকে প্রতিবেদন দিয়ে জানানো হয়, গত রোববার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ওই ছাত্রী রাজধানীর কুর্মিটোলা বাসস্ট্যান্ড থেকে ফুটপাত দিয়ে হেঁটে গলফ ক্লাবসংলগ্ন স্থানে পৌঁছান। এ সময় আসামি মজনু তাঁকে পেছন থেকে গলা ধরে মাটিতে ফেলে দেন। তাঁর গলা চেপে ধরেন। ছাত্রী চিৎকার করতে গেলে মজনু তাঁকে কিলঘুষি মারেন। ভয়ভীতি দেখান। ছাত্রী অজ্ঞান হয়ে গেলে তাঁকে ধর্ষণ করেন আসামি মজনু। মজনুকে রাজধানী থেকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব-১। আসামির স্বীকারোক্তি অনুযায়ী, তাঁর কাছ থেকে ভুক্তভোগী ছাত্রীর খোয়া যাওয়া সামগ্রী উদ্ধার করা হয়। আসামি জিজ্ঞাসাবাদে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন। মজনু একজন অভ্যাসগত ধর্ষক। এর আগে প্রতিবন্ধীসহ কয়েকজন নারীকে ধর্ষণ করেছে সে।