Advertisements

আকাশে ওড়ার স্বপ্ন সবাই দেখে। বিমান ভ্রমণে অনেকেই সেই স্বপ্ন সফল করতে পারেন। কিন্তু সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের তা কেবল আকাশ কুসুম কল্পনা হয়েই রয়ে যায়। এসব শিশুদের আকাশ ছোঁয়ার সেই স্বপ্ন পুরণে এগিয়ে এসেছে একটি বেসরকারি উড়োজাহাজ সংস্থা।

মঙ্গলবার (১৪ জানুয়ারি) সকাল ১০টা, কুয়াশায় মোড়ানো হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর। গন্তব্য কক্সবাজার। রানওয়ে বাস থেকে নেমে সাড়িবদ্ধ হয়ে বিমানে উঠছে রাজধানীর সুবিধা বঞ্চিত কিছু শিশু। বেসরকারি বিমান সংস্থা নভোএয়ারের পাখা ঘুরতেই ভেতরে যাত্রীর আসনে থাকা শিশুদের সেকি উল্লাস। সবার মুখে হাসি, উত্তেজনা। আকাশে গা ভাসাতেই বিমানের দুপাশের জানালার পাশে মুখ লেপ্টে নিচের দিকে তাকিয়ে বলল, বাংলাদেশটা কত সুন্দর। ক্লাসের সহপাঠি ও শিক্ষকদের সঙ্গে প্রথমবারের মতো বিমানে কক্সবাজার ভ্রমণের সুযোগ পেয়ে উচ্ছ্বাসিত তারা।

এক শিশু বলেন, প্রথম বার উড়োজাহাজে উঠলাম। এখন আমার ভালো লাগছে। এছাড়াও স্বপ্ন ছিল একবার উড়োজাহাজের উঠবো।

আরেক শিশু বলেন, অনেক ভালো লাগছে, এভাবে আকাশে উড়তে পারবো এটা কখনো ভাবতে পারিনি।চমৎকার এই আয়োজনে রেডিয়েন্ট ফিশ ওয়ার্ল্ড ছিল শিশুদের জন্য অপার বিস্ময়। বিরল প্রজাতির মাছ ও সাগর তলের নাম না জানা জলজ প্রাণী দেখে অভিভূত এসব শিশুরা।এক শিশু বলেন, এখানে আমরা অনেক ধরণের মাছ দেখেছি।

আরেক শিশু বলেন, এখানে অনেক ধরণের কচ্ছব দেখেছি। তবে এখানে একটা মাছ দেখলাম, যেটাকে ফিটার দিয়ে খাবার খাওয়ানো হয়।

রাজধানীর জাগো ফাউন্ডেশন স্কুলের সুবিধাবঞ্চিত ২০ শিশুকে আকাশ থেকে বাংলাদেশ দেখার সুযোগ করে দিয়েছে বেসরকারি বিমান সংস্থা নভোএয়ার। তারা এ আয়োজনের নাম দিয়েছে ‘ফ্লাইট ফ্যান্টাসি’। সংস্থাটি জানায়, সামাজিক দায়বদ্ধতার অংশ থেকেই এ ধরণের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

নভোএয়ারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মফিজুর রহমান বলেন, বিভিন্ন সামাজিক কর্মকাণ্ডে আমাদের সম্পক্ততা রাখি। তবে বাচ্চাদের নিয়ে এই প্রথম ফ্লাইট করেছি।

দেশের প্রতিটি প্রান্তে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা সুবিধাবঞ্চিত এসব শিশু সঠিক পরিচর্যা ও পৃষ্ঠপোষকতা পেলে মানবসম্পদে রুপান্তরিত হবে।

By Abraham

Translate »