রাজনীতি

সরকারের সব অপকৌশল গণজোয়ারে ভেসে যাবে: ইশরাক

Advertisements

ভোটারেরা দল বেঁধে ভোটকেন্দ্রে গেলে সরকারে সব অপকৌশল গণজোয়ারে ভেসে যাবে বলে মন্তব্য করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটির মেয়র পদে বিএনপির প্রার্থী ইশরাক হোসেন।

আজ শনিবার কোতোয়ালি থানাধীন বাংলাবাজার চৌরাস্তা মোড় থেকে গণসংযোগ শুরুর আগে সংক্ষিপ্ত পথসভায় ইশরাক হোসেন এ মন্তব্য করেন।

অবিভক্ত ঢাকা সিটি করপোরেশনের প্রয়াত মেয়র সাদেক হোসেন খোকার ছেলে ইশরাক হোসেন বলেন, ‘আমি আপনাদের ভোটে নির্বাচিত হলে জনগণের গণতান্ত্রিক অধিকার ফিরিয়ে দেওয়াসহ ঢাকাকে ঢেলে সাজানোর উদ্যোগ নেব। ক্লিন ঢাকা গড়ে তুলতে সব ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’

ধানের শীষ প্রতীক বরাদ্দ পাওয়ার পর আজ শনিবার নবম দিনের মতো প্রচারে নেমেছেন বিএনপির বৈদেশিকবিষয়ক কমিটির সদস্য ইশরাক হোসেন। আজ পুরান ঢাকার বাংলাবাজার, সদরঘাট, ইসলামপুর ও বংশাল এলাকায় প্রচার চালান তিনি।

মেয়র নির্বাচিত হলে নগরবাসীর সমস্যা সমাধানে স্বল্প, মধ্যম ও দীর্ঘমেয়াদি কর্মপরিকল্পনার ঘোষণা দেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী ইশরাক হোসেন। তিনি বলেন, গত ১৩ বছরে ঢাকা ধ্বংস করা হয়েছে। বাস অনুপযোগী এই শহরকে বাসযোগ্য করে গড়ে তোলাই হবে তাঁর প্রধান কাজ।

ইশরাক হোসেন বলেন, ‘আমি গতকাল শুক্রবার কদমতলী, শ্যামপুর, যাত্রাবাড়ী এলাকার বেহাল অবস্থা দেখেছি। এই চিত্র শুধু যাত্রাবাড়ী, কদমতলী অথবা শ্যামপুরেরই নয়। এটা পুরো ঢাকারই চিত্র। এর কারণ, বর্তমান ক্ষমতাসীনরা অনির্বাচিত। ভোটে নির্বাচিত হলে জনগণের কাছে সরকারের দায়বদ্ধতা থাকে।’ অনির্বাচিত সরকার ও মেয়রের জবাবদিহি না থাকায় ঢাকার এই বেহাল অবস্থা বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ধানের শীষের প্রচারে ইশরাক হোসেনের সঙ্গে আছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব-উন নবী খান সোহেল, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার, যুবদলের সাধারণ সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকু, সিনিয়র সহসভাপতি মোরতাজুল করিম বাদরু, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ ছাত্রদলের সভাপতি এস এম জিলানী ও বিভিন্ন ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীসহ হাজারো নেতা-কর্মী।