Advertisements

গুঞ্জনটাই সত্য হলো শেষ পর্যন্ত। ওটিস গিবসনের কাঁধেই পড়ল হাসান-মোস্তাফিজদের দায়িত্ব। দক্ষিণ আফ্রিকার সাবেক প্রধান কোচ ওটিস গিবসনের সঙ্গে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) আলোচনা চলছিল বঙ্গবন্ধু বিপিএল চলার সময় থেকেই।

গিবসন ছিলেন কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের প্রধান কোচ হিসেবে। তখন থেকেই গিবসন ইঙ্গিত দিয়েছিলেন, বিসিবি চাইলে দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত তিনি। বিসিবিও সেই সুযোগটা নিলো। মোস্তাফিজদের বোলিং কোচ হিসেবে তিনি দায়িত্ব পালন করবেন আগামী দুই বছর। আজ মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) রাতে এক বিবৃতির মাধ্যমে তার নাম ঘোষণা করে বোর্ড।  গেল ডিসেম্বরে দক্ষিণ আফ্রিকান চার্ল ল্যাঙ্গাবেল্ট চার মাসের মাথায় দায়িত্ব ছেড়ে দেন টাইগারদের বোলিং কোচের। এরপর অবশ্য বিসিবিও বসে ছিল না।

গত রোববার বিসিবির বোর্ড মিটিংয়ে এই ক্যারিবীয় কোচের সঙ্গে চুক্তির বিষয়ে সিদ্ধান্ত হয়। আগামী ২০২২ সাল পর্যন্ত গিবসন বিসিবির সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হন।  গিবসনের সঙ্গে চুক্তির বিষয়ে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজাম উদ্দিন চৌধুরী এক বিবৃতিতে বলেন, তিনি (গিবসন) অসাধারণ কোচ। বিশ্বব্যাপী তার কোচিংয়ের অভিজ্ঞতা দারুণ। বিপিএলের মাধ্যমে তার সুযোগ হয়েছে বাংলাদেশ দলকে খুব ভালোভাবে দেখার। আমি নিশ্চিত বাংলাদেশ দলের কোচিং স্টাফে তিনি একজন মূল্যবান সদস্য হতে যাচ্ছেন। বুধবার পাকিস্তানে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলতে রাত ৮টায় রওনা করবে বাংলাদেশ দল। গিবসন ইংল্যান্ড থেকে যাবেন পাকিস্তানে।

বিপিএল চলাকালীন বাংলাদেশ দলের বোলিং কোচ হতে আগ্রহী গিবসন বলেছিলেন, অবশ্যই, আমি ক্রিকেট ভালোবাসি, বোলিং কোচিংটা ভালোবাসি। এখানে একটা সুযোগ রয়েছে আসার এবং আমি মনে করি তরুণ বোলারদের আমি সহযোগিতা করতে পারব। আমি অবশ্যই এই সুযোগের দিকে তাকিয়ে আছি। ওটিস গিবসন ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে দুটি টেস্ট ও ১৫টি ওয়ানডে খেলেছেন। দুই টেস্টে তিনি নিয়েছেন তিন উইকেট ও ১৫টি ওয়ানডেতে নিয়েছেন ৩৪টি উইকেট। মাঠের ক্রিকেটে এতটা খ্যাতি না থাকলেও কোচিং ক্যারিয়ারটা বেশ সমৃদ্ধ বলা চলে।

By Abraham

Translate »