Advertisements

চীনসহ বেশ কয়েকটি দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ফলে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে। আর এটি প্রতিরোধে অস্ট্রেলিয়ার বিজ্ঞানীরা কাঁটা দিয়ে কাঁটা তোলার একটি পদ্ধতি আবিষ্কার করেছেন।

বিজ্ঞানীরা এই ভাইরাসের মতোই আরো একটি ভাইরাস তৈরি করেছেন। তাদের দাবি, এই নতুন ভাইরাস করোনার চিকিৎসায় উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে।

অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্নের একটি ল্যাবের গবেষকরা বলেছেন, শুক্রবার তাদের কাছে করোনাভাইরাসের নমুনা পাঠানো হয়েছিল। আর তারা সংক্রামিত রোগীর শরীর থেকে করোনা ভাইরাসের স্যাম্পল সংগ্রহ করে সেইভাবে নতুন আরেক ভাইরাস বানাতে সক্ষম হয়েছে।

মেলবোর্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের পিটার দোহার্টি ইনস্টিটিউট ফর ইনফেকশন অ্যান্ড ইমিউনিটির ডা. মাইক ক্যাটটন বলেছেন, আমরা বহু বছর ধরে এই জাতীয় একটি বিষয় নিয়ে পরিকল্পনা করছিলাম। আর এ কারণেই এত তাড়াতাড়ি সফলও হয়েছি।

চীনের হুয়ান শহর থেকে প্রতিদিন যেখানে শত শত বিদেশি নাগরিককে সরিয়ে নেয়া হচ্ছে তখন অস্ট্রেলিয়া সরকারের এই ভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে নতুন এক সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাদের যে ৬’শ নাগরিক চীন থেকে ফিরেছে তাদেরকে দুই সপ্তাহের জন্য ক্রিশমাস আইল্যান্ড নামের এক নির্জন দ্বীপে রাখা হবে। এই দ্বীপটি অস্ট্রেলিয়ার মূল ভূ-খণ্ড থেকে দুই হাজার কিলোমিটার দূরে।

চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস এরইমধ্যে জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, থাইল্যান্ড, যুক্তরাষ্ট্র, সিঙ্গাপুর, ভিয়েতনাম, তাইওয়ান, নেপাল, ফ্রান্স, সৌদি আরব, কানাডা ও জার্মানিসহ কমপক্ষে ১৬টি দেশে ছড়িয়ে পড়েছে। সংক্রমণ ঠেকাতে এরই মধ্যে চীনের মূল ভূখণ্ডের সঙ্গে সীমান্ত বন্ধ ঘোষণা করেছে হংকং।

By Abraham

Translate »