Advertisements

তামিম ইকবালের ক্যারিয়ারের প্রথম ট্রিপল সেঞ্চুরির অপেক্ষাটা আজ সকাল থেকেই। কাল ২২২ রানে দিন শেষ করার পর আজ ঠিকই উঠে বসলেন ট্রিপল সেঞ্চুরির চূড়ায়। রকিবুল হাসানের পর দ্বিতীয় বাংলাদেশি হিসেবে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ট্রিপল সেঞ্চুরি। ট্রিপল সেঞ্চুরি করেই থামলেন না তামিম। ছাড়িয়ে গেছেন রকিবুলকেও। ৩৩৪ রানে অপরাজিত তামিম হয়ে গেলেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সর্বোচ্চ রানের ইনিংস খেলা বাংলাদেশি ব্যাটসম্যান।

এক ইনিংসে তিন শ রান করবেন, এমন কিছুর কখনো ভাবেননি তামিম, ‘এটা দারুণ অনুভূতি। সত্যি কথা আমি কোনো দিন চিন্তা করিনি তিন শ করার। স্বপ্ন অবশ্যই থাকে। এ ম্যাচে হয়ে যাবে সেটা কখনো ভাবিনি। আমার জন্য গুরুত্বপূর্ণ ছিল, সেটা হলো আমি কীভাবে ব্যাটিং করেছি। এটা না যে আমি কত রান করেছি বা আমি ট্রিপল সেঞ্চুরি করেছি। আমি যেভাবে ব্যাট করেছি, সব থেকে বেশি স্বস্তি ছিল আমার ব্যাটিংয়ের ধরনে।’

আক্রমণাত্মক ব্যাটসম্যান হিসেবে তাঁর যে নাম ডাক, সাম্প্রতিক সময়ের পারফরম্যান্স সে সাক্ষী দেয় না। স্বাভাবিকভাবে প্রশ্নটা এসেই যায়, তাহলে এই ইনিংসে কী এমন ব্যতিক্রম ছিল? তামিম সামনে আনলেন মানসিক দৃঢ়তাকে, ‘আমি দৃঢ়প্রতিজ্ঞ ছিলাম। উইকেটে বল সেভাবে ঘুরছিল না, বাড়তি কিছুই হচ্ছিল না। তো আমার কাছে মনে হয়েছে আমি নিজেকে ইতিবাচক রাখার চেষ্টা করেছি। তিন শ রান করার পর আমি সুযোগ নিয়েছি। এর আগে আমার মনে হয় না আমার বিশেষ কিছু করার ছিল। আমি ব্যাটিং করে গেছি। ক্রিকেটিং শট খেলে গিয়েছি। সব সময় চেষ্টা করছিলাম যে আমি চার মারব। ছয় মারার কোনো চিন্তা ছিল না।’

এই ইনিংসটি তামিমের হ্রদয়ের বড় জায়গা জুড়ে থাকবে, ‘এটা বিশেষ ইনিংস। তিন শ করা যেকোনো প্রতিপক্ষের বিপক্ষে কঠিন। আবার যেকোনো পর্যায়ের ক্রিকেটেই এটা করা কঠিন। এটা যদি সহজ হতো তাহলে প্রত্যেক মাসে একজন করে দেখতেন যে তিন শ করছে। আমার হৃদয়ে খুব বড় জায়গায় এটা থাকবে।’

By Abraham

Translate »