Advertisements

ভারতের যুবাদের হারিয়ে অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপের শিরোপা জিতেছে বাংলাদেশ।

জাতীয় দল যখন পাকিস্তানে ব্যর্থতার মিছিলে তখন যুব দল বিশ্বকাপে তাক লাগিয়ে দিয়েছে দক্ষিণ আফ্রিকায়। বিশ্ব অবাক দৃষ্টিতে দেখছে নতুন বিশ্ব চ্যাম্পিয়নদের। ছোটদের সাফল্য টিভির পর্দায় দেখেছেন মুমিনুলরা। আর বিস্ময় ছড়িয়েছে প্রত্যেকের মধ্যে! এতোটুকু বয়সে এতোটা নিবেদন, এতোটা তাড়না, এতোটা ধৈর্য্য।

শুধু বিস্ময় ছড়ায়নি, ভেতর থেকে প্রত্যেকের আত্ম-উপলব্ধি, ‘যুব দল থেকেই আমাদের শেখা উচিত।’ মুমিনুল হক রাওয়ালপিন্ডি টেস্ট ইনিংস ব্যবধানে হারের পর গণমাধ্যমে এ কথা বলেছেন সরাসরি।

‘তারা মাঠে যেভাবে লড়াই করেছে, যে ধৈর্য্য দেখিয়েছে সেটা আমাদের শেখা উচিত। তাদের থেকে আরেকটি বিষয়ও নিতে পারি। তারা যেভাবে নিজেদের ওপর বিশ্বাস রেখেছে এবং একে অপরের সাথে যে যোগাযোগ করেছে সেটাও আমরা গ্রহণ করতে পারি।’ – বলেছেন মুমিনুল।

তাহলে জুনিয়র টাইগাররা হতে যাচ্ছে সিনিয়রদের রোল মডেল। পাকিস্তানি সাংবাদিকদের এমন প্রশ্ন এড়াতে পারেননি টেস্ট অধিনায়ক।

‘আপনি জুনিয়র কিংবা সিনিয়র যে কারো কাছ থেকেই কিন্তু শিখতে পারেন। আপনার শিখতে পারাটাই হচ্ছে মূল বিষয়। তারা আমাদের বুঝিয়ে দিয়েছে কিভাবে বড় সাফল্য পেতে হয়। তারা অসাধারণ পারফরম্যান্স করেছে। তাদেরকে দলের পক্ষ থেকে অভিনন্দন জানাই।’

যুব ক্রিকেট পেরিয়ে মুমিনুল আজ জাতীয় দলে। যুব বিশ্বকাপও খেলেছেন তিনি। কোথায় পার্থক্য দেখলেন মুমিনুল। কেন বাংলাদেশ আগে পারেনি আর কেন বাংলাদেশ এবার পারল? সেই ব্যাখ্যাও দিয়েছেন মুমিনুল।

‘আমার কাছে মনে হয় যারা যুব দলের খেলোয়াড় ছিল তারা খুব বেশি ক্ষুধার্ত ছিল। সবথেকে ভালো যে দিক ছিল, তারা দুই বছর একসঙ্গে খেলেছে। এটা খুবই ইতিবাচক দিক। এক জন আরেকজনকে জানা, একজন আরেকজনের প্রতি যোগাযোগ রাখা, বিশ্বাস করা। মাঠে দেখেছেন হয়তো, একজন আরেকজনের জন্য চিৎকার করে যাচ্ছিল, যেভাবে ব্যাকআপ করছিল সেখানে বিশ্বাস চলে আসে।’

‘এটা বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য সব থেকে বড় অর্জন। এর থেকে বেশি কিছু আর হতে পারে না। আমার বিশ্বাস এখান থেকে ছয়-সাতটা খেলোয়াড় পাবে যারা পরবর্তীতে বাংলাদেশ জাতীয় দলকে সাপোর্ট দিতে পারে।’

নিজেদের হতশ্রী পারফরম্যান্স নিয়ে মুমিনুলের ব্যাখ্যা, ‘খুবই হতাশাজনক পারফরম্যান্স। কোনো অজুহাত দেব না। আসলে আমাদের অনেক উন্নতি করতে হবে। আমাদেরকে আমাদের ভুলগুলো শুধরাতে হবে। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের এখনও ৮-৯টি ম্যাচ আছে। আশা করছি আমরা দ্রুত ঘুরে দাঁড়াতে পারব।’

By Abraham

Translate »