আন্তর্জাতিক

নাইজেরিয়ায় নারকীয় হত্যাকাণ্ড, অন্তঃসত্ত্বাসহ ৩০ জনকে পুড়িয়ে হত্যা

Advertisements

ঘুমন্ত অবস্থায় অন্তত ৩০ জনকে নৃশংসভাবে পুড়িয়ে হত্যা করা হয়েছে নাইজেরিয়ায়। নিহতদের মধ্যে অন্তঃসত্ত্বা নারী এবং শিশু রয়েছে। এই গণহত্যার পিছনে জঙ্গি সংগঠন ‘বোকো হারাম’ রয়েছে বলে সন্দেহ প্রকাশ করা হচ্ছে। নিহতরা সকলেই পর্যটক। রাতে তারা যখন ঘুমন্ত অবস্থায় ট্রাকে করে যাচ্ছিলেন, সেসময় অতর্কিতে এই নৃশংস হত্যাকাণ্ড চালানো হয়।

দেশটির বোর্নো স্টেটের গভর্নরের মুখপাত্র জানান, মাইদুগরির ওউনো গ্রামে রাত ১০টা নাগাদ এই নৃশংস গণহত্যার ঘটনাটি ঘটে। জঙ্গিরা ১৮টি গাড়িও পুড়িয়ে দিয়েছে। মৃতের তালিকা আরো দীর্ঘ হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন তিনি।

সেহু তাংকো নামে স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, জঙ্গিরা সব পুড়িয়ে দিয়েছে। ঘটনার পর ওই অঞ্চলেরও অনেকে নিখোঁজ। ফলে, তাদেরও পুড়িয়ে মারা হয়েছে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

যদিও, এখনও পর্যন্ত কোনও জঙ্গি সংগঠন এই হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে, বোকো হারাম জঙ্গিরা একদশক ধরে সেখানে সংঘর্ষে লিপ্ত। তারা প্রায়ই নাইজেরিয়ার সেনাদের ওপর হামলা চালায়। স্থানীয়দের অপহরণ করে। ফলে, এই ঘটনায় বোকো হারামই যুক্ত থাকতে পারে বলে সন্দেহ প্রকাশ করা হচ্ছে। ইসলামিক স্টেট ইন ওয়েস্ট আফ্রিকা নামে আরও একটি জঙ্গি সংগঠন সেখানে সক্রিয়। ফলে, তারাও সন্দেহের ঊর্ধ্বে নয়।

নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদু বুহারি সোমবার আফ্রিকান ইউনিয়নের সিকিওরিটি কাউন্সিলের সভায় জানান, সন্ত্রাসবাদীদের কবজা থেকে নাগরিকদের মুক্ত করতে তার সরকার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

Leave a Reply