জানাঅজানা

‘হারাম’ ভ্যালেন্টাইন সৌদিতে এখন ‘হালাল’

Advertisements

পশ্চিমা দেশগুলোর মতো মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবেও ১৪ ফেব্রুয়ারি উদযাপিত হচ্ছে ‘ভ্যালেন্টাইন ডে’ বা ভালোবাসা দিবস। প্রিয়জনকে ফুল, চকলেটসহ বিভিন্ন সামগ্রী উপহার দিয়ে দেশটির তরুণ-তরুণীরা ভালোবাসা দিবস উদযাপনে মেতে উঠেছে।

অথচ কয়েক বছর আগেও সৌদি আরবে ভালোবাসা দিবস উদযাপনের বিষয়টি ছিল এক কথায় অকল্পনীয়। কাগজে-কলমে সৌদি আরবে ভালোবাসা দিবস উদযাপন ‘হারাম’ বা নিষিদ্ধ। তিন বছর আগেও দেশটিতে ভালোবাসা দিবসের উদযাপন ঠেকাতে সচেষ্ট থাকতো দেশটির ধর্মীয় পুলিশ। আইন লঙ্ঘনকারীদের গ্রেপ্তারের অনুমতিও ছিল এই ধর্মীয় পুলিশের। এ ছাড়া এই দিনটিতে লাল গোলাপ ও চকলেট লুকিয়ে রাখা দোকানিদের জন্য ছিল বাধ্যতামূলক।

তবে ২০১৮ সাল থেকে পরিস্থিতি বদলাতে শুরু করে। ওই বছর মক্কার সদাচার প্রচার ও অনাচার প্রতিরোধ কমিশনের (সিপিভিপিভি) সাবেক প্রেসিডেন্ট শেখ আহমেদ কাশিম আল-ঘামদি ঘোষণা করেন, ‘ভ্যালেন্টাইন ডে’ উদযাপন প্রকৃতপক্ষে ইসলামের শিক্ষার সঙ্গে সাংঘর্ষিক নয়। তার মতে, ভালোবাসার উদযাপন হচ্ছে সার্বজনীন একটি বিষয় এবং এটা শুধুমাত্র বিশ্বের অমুসলিমদের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়।

সিপিভিপিভি’র সাবেক প্রেসিডেন্টের এমন ঘোষণার পরই দৃশ্যপটে আসতে শুরু করে পরিবর্তন। ভালোবাসা দিবস উদযাপনকারীদের গ্রেপ্তারের ক্ষমতা হারায় ধর্মীয় পুলিশ। কাগজে-কলমে ভালোবাসা দিবস উদযাপনে নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকলে আইনটি এখন অনেকটাই শিথিল। আইনের এই শিথিলতার সুযোগ নিয়ে দেশটির তরুণ-তরুণীরাও গত দুই বছর ১৪ ফেব্রুয়ারিতে মেতে ওঠে ভ্যালেন্টাইন উদযাপনে। আর এ বছর তো সৌদি গণমাধ্যমগুলো মানুষকে ভালোবাসা দিবস উদযাপনে রীতিমতো উৎসাহ দিচ্ছে। এর অংশ হিসেবে ‘ভ্যালেন্টাইড গাইড’ ছেপেছে দেশটির প্রভাবশালী গণমাধ্যম আরব নিউজ। সূত্র: মিডল ইস্ট মনিটর ও আরব নিউজ

Leave a Reply