Advertisements
লা লিগায় আজ গেতাফেকে ২-১ গোলে হারিয়েছে বার্সেলোনা

চীন থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস আতঙ্কে ভুগছে বিশ্ব। বাদ যায়নি ক্রীড়াঙ্গনও। মারাত্মক এ ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচতে এর মধ্যেই বাতিল হয়েছে নানা টুর্নামেন্ট। সবচেয়ে বেশি ভুক্তভোগী চীনের মানুষের প্রতি সহমর্মিতা আজ মাঠেই প্রকাশ করল বার্সা। নিজেদের মাঠে গেতাফের মুখোমুখি হওয়ার আগে মাঠে ‘শক্ত থাকো, পাশেই আছি’ ব্যানার নিয়ে নেমেছেন লিওনেল মেসিরা। তবে খেলা শুরুর পর বার্সারও ‘সংক্রমিত’ হওয়ার শঙ্কা ছিল! গেতাফের কাছে হার না হলেও অন্তত পয়েন্ট খোয়ানোর শঙ্কা ছিল ম্যাচের শেষ বাঁশির আগ পর্যন্তও।

না, হারেনি কিংবা পয়েন্টও ভাগ করেনি কিকে সেতিয়েনের দল। গেতাফেকে শেষ পর্যন্ত ২-১ গোলে হারিয়ে মাঠ ছেড়েছে স্বাগতিকেরা। তবে প্রথমার্ধে গেতাফের একটি গোল বাতিল হয়েছে ভিএআরে। দ্বিতীয়ার্ধে গেতাফের কর্নারে বার্সা গোলরক্ষক টের-স্টেগেন অসাধারণভাবে গোল না বাঁচালে হয়তো বার্সার কপালে দুর্গতিই ছিল। ম্যাচজুড়ে প্রতিপক্ষের দারুণ প্রেসিংয়ের সামনে কিছু কিছু সময়ে অসহায় মনে হয়েছে বার্সাকে।

২৩ মিনিটে কর্নার থেকে উড়ে আসা বলে গেতাফে খেলোয়াড়ের হেড টের-স্টেগেন অবিশ্বাস্য দক্ষতায় ফেরালেও ফিরতি বল পেয়ে যান অ্যালান নিয়োম। আলতো শটে বল জালে পাঠালেও ভিএআরে দেখা যায়, গোলটি করার আগে বার্সা ডিফেন্ডার স্যামুয়েল উমতিতির মুখে আঘাত করেছিলেন তিনি। গোলটা তাই বাতিল হয়। ম্যাচে এগিয়ে যাওয়া আর হয়নি গেটাফের। ঠিক তারপর থেকেই জেগে ওঠে বার্সা। ৩৩ থেকে ৩৯—এই ৭ মিনিটের মধ্যে স্বাগতিকেরা করেছে ২ গোল!

৩৩ মিনিটে বার্সার প্রথম গোলটি লিওনেল মেসির বুদ্ধিদীপ্ত পাসের ফসল। সামনে থাকা ডিফেন্ডারের উল্টো পাশ দিয়ে আঁতোয়ান গ্রিজমানকে পাস দেন মেসি। ফরাসি ফরোয়ার্ড দারুণ চিপে সহজেই পরাস্ত করেন গেতাফে গোলরক্ষককে। পরের গোলটি বক্সের বাঁ প্রান্ত থেকে জোরাল শটে করেন সার্জি রবার্তো। ২-০ গোলে এগিয়ে বিরতিতে মাঠ ছাড়ে বার্সা।

বিরতির পর খেলা জমেছে সবচেয়ে বেশি। আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণের পাশাপাশি উত্তেজনাও ভর করেছিল খেলায়। তবে প্রথমার্ধেই একটি দুঃসংবাদ পেয়েছে বার্সা। চোট নিয়ে মাঠ ছাড়েন ডিফেন্ডার জর্ডি আলবা। বদলি নামেন জুনিয়র ফিরপো। তবে বিরতির পর মাঝমাঠে বার্সার খেলা পুরো নিয়ন্ত্রণ করেছেন মেসি। গ্রিজমান ও আনসু ফাতিকে দিয়ে খেলিয়েছেন ভালোই। ৮৫ মিনিটে ফাতির বদলি হয়ে নামা আরতুরো ভিদালকেও দিয়েছেন ভালো কিছু পাস। যদিও নির্ধারিত সময়ের শেষ মুহূর্তে অল্পের জন্য গোল পাননি মেসি। বাঁ প্রান্ত দিয়ে ঢুকে তাঁর বাঁকানো শট গোলপোস্টে ইঞ্চি দূরত্ব দিয়ে লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। তার আগে ম্যাচ ২-১ থাকা অবস্থায় পাল্টা আক্রমণের পর সহজ সুযোগ পেয়েও গোল করতে পারেননি গ্রিজমান।

গেতাফেও বিরতির পর ভালো কিছু সুযোগ পেয়েছে। ৬৬ মিনিটে এমন এক সুযোগ থেকেই দুর্দান্ত ভলিতে গোল করেন বদলি নামা আনহেল রদ্রিগেজ। স্প্যানিশ এ ফুটবলারকে বার্সা কেনার চেষ্টা করছে-এমন গুঞ্জন রয়েছে সংবাদমাধ্যমে।

এ জয়ে ২৪ ম্যাচে বার্সার সংগ্রহ দাঁড়াল ৫২ পয়েন্ট। ২৩ ম্যাচে ৫২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে রিয়াল মাদ্রিদ। গোল ব্যবধানে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে রিয়াল।

By Abraham

Translate »