Advertisements

আইএসের সঙ্গে জড়িত ব্রিটিশ নাগরিক শামীমাকে বাংলাদেশ গ্রহণ করবে না জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, শামীমার সঙ্গে বাংলাদেশের কোনো সম্পর্ক নেই। তাকে নিয়ে মাথাব্যথা ব্রিটিশ সরকারের, বাংলাদেশের নয়। তার পিতা-মাতাও ব্রিটিশ নাগরিক। সে কখনোই এদেশে আসেনি। শুধু শামীমা নয়, জঙ্গি কাউকেই এদেশে ঢুকতে দেওয়া হবে না।

শনিবার বিকালে সিলেট নগরীর একটি কমিউনিটি সেন্টারে মোয়াজ্জেম ফাতেমা ট্রাস্টের বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন। এছাড়া সন্ধ্যায় মন্ত্রী নগরীর কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে একুশের আলোকে নাট্য প্রদর্শনীতে সিলেটের ৫ জন মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন।

ড. মোমেন বলেন, ইসলামের ভুল ব্যাখ্যার কারণে কিছু মানুষ জঙ্গিবাদে জড়াচ্ছে। তাদের সম্পর্কে সবাইকে সজাগ থাকতে হবে।

করোনাভাইরাস প্রসঙ্গে তিনি বলেন, চীনে অবস্থানরত অবশিষ্ট বাংলাদেশি শিক্ষার্থীদেরকে পর্যায়ক্রমে দেশে আনার ব্যবস্থা করা হবে।

মোয়াজ্জেম-ফাতেমা ফাউন্ডেশন চেয়ারম্যান মনোয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে এবং শাহাদাত বখত শাহেদ ও কামাল আহমদ ফারুকের পরিচালনায় বৃত্তি প্রদান অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি মাসুক উদ্দিন আহমদ, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক জাকির হোসেন, আওয়ামী লীগ নেতা জাবেদ আহমদ, তপন মিত্র, দৈনিক উত্তরপূর্বের প্রধান সম্পাদক আজিজ আহমদ সেলিম প্রমুখ।

এদিকে সন্ধ্যায় কবি নজরুল অডিটোরিয়ামে সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার প্রতিষ্ঠায় বিশেষ উদ্যোগ নেওয়ার জন্য বীরবিক্রম ইয়ামিন চৌধুরী (মরণোত্তর), মুক্তিযোদ্ধা ইফতেখার হোসেন শামীম (মরণোত্তর), মুক্তিযোদ্ধা সদর উদ্দিন আহমদ চৌধুরী, মুক্তিযোদ্ধা শতকত আলী ও নাটকে বিশেষ অবদানের জন্য মুক্তিযোদ্ধা সুব্রত চক্রবর্তী জুয়েলকে সম্মানা প্রদান করেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন।

সম্মিলিত নাট্যপরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমদ মিশুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক রজত কান্তি গুপ্তের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।

By Abraham

Translate »