Advertisements

ক্লাবের স্পোর্টিং ডিরেক্টর এরিক আবিদালের সঙ্গে কথার লড়াইয়ে জড়ানোর পর থেকে সংবাদ মাধ্যমে খবর, বার্সেলোনা ছাড়তে পারেন লিওনেল মেসি। তবে এমন গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়েছেন রেকর্ড ছয়বারের বর্ষসেরা এই তারকা।

সম্প্রতি স্প্যানিশ পত্রিকা দিয়ারিও স্পোর্তকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে আবিদাল দাবি করেন, সাবেক কোচ এরনেস্তো ভালভেরদের সময় ফুটবলারদের অনেকে মাঠে শতভাগ দেননি। ইনস্টাগ্রামে তার এমন মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করেন মেসি। তাদের সঙ্গে আলোচনা করে উত্তপ্ত পরিস্থিতি শান্ত করেন ক্লাব সভাপতি জোজেপ মারিয়া বার্তোমেউ।

বার্সেলোনার সঙ্গে ২০২১ সাল পর্যন্ত চুক্তি আছে মেসির। তবে স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের দাবি, মেসির চুক্তির একটা বিশেষ দিক হচ্ছে, শর্ত অনুযায়ী প্রতিটি মৌসুম শেষে ইচ্ছে করলে রেকর্ড ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলার বিদায় বলে দিতে পারেন। সেক্ষেত্রে শুধু ইচ্ছার কথাটা কর্তৃপক্ষকে মে মাস শেষের আগে জানাতে হবে। তাহলেই তিনি ‘ফ্রি’ হয়ে যাবেন।

মুন্দো দেপোর্তিভোকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ক্লাবের প্রতি নিজের ভালোবাসার কথা জানান মেসি।

“আমি বার্সেলোনাকে ভালোবাসি, যদিও আমি রোসারিওকে খুব মিস করি। বার্সেলোনা আমার বাড়ি, আমি আর্জেন্টিনায় যতটা সময় কাটিয়েছি, তার চেয়ে বেশি সময় এখানে আছি।”

“আমি বার্সেলোনাকে ভালোবাসি। এখানে আমি থাকি এবং পেশাগত কারণে যা করি তা সত্যি উপভোগ করি।”

চলতি সপ্তাহে স্পেনের একটি রেডিও চ্যানেল দাবি করে, ক্লাব সভাপতি বার্তোমেউয়ের সম্মান রক্ষার্থে মেসি ও জেরার্দ পিকের মতো দলের অভিজ্ঞ, গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়দের ভাবমূর্তি নষ্ট করতে বার্সেলোনা একটি প্রতিষ্ঠান ভাড়া করেছে। ক্লাবের ওয়েবসাইটে দেওয়া এক বিবৃতিতে, পুরো বিষয়টি গুজব বলে উড়িয়ে দেয় লা লিগা চ্যাম্পিয়নরা। এমন ঘটনায় অবাক হয়েছেন মেসি।

“এটা আমাকে কিছুটা অবাক করেছে কারণ আমি এখানে ছিলাম না। … সত্যি বলতে এমন কিছু যে ঘটতে পারে, সেটা দেখেই আমি অবাক হয়েছি। কিন্তু তারা এটাও বলেছে যে তাদের কাছে প্রমাণ থাকতে পারে। এটা সত্যি কিনা তা জানতে আমাদের অপেক্ষা করতে হবে।”

By Abraham

Translate »