Advertisements
দুদিন আগেই পিএসএলের এক ম্যাচে ডাগআউটে মোবাইল ফোনে কথা বলতে দেখা যায় করাচি কিংসের প্রধান নির্বাহী তারিককে, ছড়িয়ে পড়ে ম্যাচ পাতানোর গুঞ্জন। এবার ইংলিশ ব্যাটসম্যান জেসন রয় তুললেন বল বিকৃত করার অভিযোগ

‘বিতর্কে জড়াব না’, টুর্নামেন্ট শুরুর আগে ঢাকঢোল পিটিয়ে খেলোয়াড়দের শপথ করানোর পরেও বিতর্ক থেকে পিএসএল মুক্তি পাচ্ছে কই? দুদিন আগে ওঠা ম্যাচ পাতানোর গুঞ্জন বাতাসে মিলিয়ে যেতে না যেতেই এবার উঠল বল বিকৃত করার মতো গুরুতর অভিযোগ। অভিযোগ তুলেছেন ইংলিশ ব্যাটসম্যান জেসন রয়।

এবার পিএসএলে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরসের হয়ে খেলছেন এই ইংলিশ ওপেনার। সন্দেহের আঙুল তুলেছেন পেশোয়ার জালমির পাকিস্তানি পেসার ওয়াহাব রিয়াজের দিকে। পিএসএলের প্রথম দিনে এই দুই ফ্র্যাঞ্চাইজির ম্যাচেই উঠেছে বিতর্ক। এক সূত্রের বরাত দিয়ে হিন্দুস্তান টাইমস জানিয়েছে, ম্যাচের মধ্যে রিভার্স সুইং পাওয়ার জন্য বল নিয়ে কিছু একটা করছিলেন পেশোয়ার জালমির ওয়াহাব রিয়াজ, যা নজরে পড়ে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরসে জেসন রয়ের। পরে ওয়াহাবকে রয় সরাসরি জিজ্ঞেস করেন, ‘তুমি কি বাড়তি সুইং পাওয়ার জন্য বল বিকৃত করছ?’ প্রশ্ন শুনে ক্ষিপ্ত হয়ে যান বাঁহাতি এই পাকিস্তানি পেসার। ব্যাপারটা হয়তো হাতাহাতি পর্যন্ত গড়াত, যদি না কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরসের অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ এসে পরিস্থিতি শান্ত করতেন। ম্যাচ শেষে সরফরাজও স্বীকার করেছেন, দুই ক্রিকেটারের মধ্যে ঝামেলা হয়েছিল। যদিও তিনি ব্যাপারটাকে উড়িয়ে দিতে চেয়েছেন, ‘দেখুন, এসব জিনিস ক্রিকেটে হয়েই থাকে। খেলোয়াড়দের মধ্যে যেহেতু অনেক প্রতিদ্বন্দ্বিতা এখন, এসব হওয়া অস্বাভাবিক কিছু নয়।’

ম্যাচ রিপোর্টে কাউকে সরাসরি অভিযুক্ত না করে বল বিকৃতির বিষয়টা উল্লেখ করেছে কোয়েটা গ্ল্যাডিয়েটরস। তারা ম্যাচ অফিশিয়ালদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে, বলের অবস্থা যেন মনোযোগের সঙ্গে পর্যবেক্ষণ করা হয়।

তবে ওয়াহাব রিয়াজের ওপর বল বিকৃতির অভিযোগ এটাই প্রথম নয়। কিছুদিন আগে করাচি কিংসের অধিনায়ক ইমাদ ওয়াসিমও ওয়াহাবের বিরুদ্ধে পিএসএলে বল বিকৃতির অভিযোগ তুলেছিলেন। তাঁর মতে, পিএসএলে বল বিকৃত করতে পারদর্শী তিনজন ক্রিকেটারের মধ্যে একজন এই ওয়াহাব। বাকি দুজন সোহেল খান ও রবি বোপারা।

দুদিন আগে ম্যাচ পাতানোর অভিযোগও উঠেছিল পিএসএলে। করাচি কিংস আর পেশোয়ার জালমির ম্যাচ জন্ম দিয়েছে এই বিতর্কের। ম্যাচটি চলাকালে কিংসের ডাগআউটে একজনকে মোবাইল ফোনে কথা বলতে দেখা গেছে। সেই ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে যাওয়ার পর অনেকেই ম্যাচটি থেকে ফিক্সিংয়ের গন্ধ পাচ্ছেন।

By Abraham

Translate »