Advertisements

স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর পূর্বনির্ধারিত ভারত সফর স্থগিত করা হয়েছে। রোববার আকস্মিকভাবে এই সফর স্থগিত করা হয়। পরবর্তী সময়ে এই সফরসূচি পুনর্নির্ধারণ করা হবে।

ভারতের লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লার আমন্ত্রণে কাল সোমবার শিরীন শারমিন চৌধুরীর ভারত সফরে যাওয়ার কথা ছিল।

স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, ১৭ মার্চ থেকে মুজিব শতবর্ষের অনুষ্ঠান শুরু হচ্ছে। তিনি মুজিব শতবর্ষের অনুষ্ঠানে বিশেষ দায়িত্বে থাকায় এখন ভারত সফরে যেতে পারছেন না। মুজিব শতবর্ষ উদযাপনে গঠিত জাতীয় কমটির সঙ্গে সংসদ থেকে কিছু কর্মসূচি সমন্বয় করতে হবে। এটা পূর্বনির্ধারিত ছিল না, সম্প্রতি এই দায়িত্বগুলো তাঁর ওপর এসেছে। মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে বিদেশি অতিথিদের আমন্ত্রণ জানানো ও নিশ্চিত করা, ২২ ও ২৩ মার্চ জাতীয় সংসদে বিশেষ অধিবেশন, ২৬ মার্চের অনুষ্ঠান আছে। এসব ব্যস্ততার কারণে তিনি আপাতত ভারত সফরে যেতে পারছেন না। মার্চের পর ভারত সফরের সূচি পুনর্নির্ধারণ করা হবে।

অবশ্য সংসদ সচিবালয়ের একটি সূত্র জানায়, ভারতের রাজধানী দিল্লির সাম্প্রতিক সহিংস পরিস্থিতির কারণে সফর স্থগিত করা হয়।

ভারতের নাগরিকত্ব আইন ও জাতীয় নাগরিকপুঞ্জি নিয়ে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে কিছুটা অস্বস্তি তৈরি হয়। এই আইন নিয়ে দিল্লিতে গত কয়েক দিনে ব্যাপক সহিংস ঘটনা ঘটেছে। এর আগে ভারতের উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যে সহিংসতা হয়েছিল। সে সময় গত ডিসেম্বরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেনের ভারত সফর বাতিল করা হয়েছিল।

গত ডিসেম্বরে ঢাকায় নিযুক্ত ভারতের রাষ্ট্রদূত রীভা গাঙ্গুলী দাশ ভারতের লোকসভার স্পিকার ওম বিড়লার আমন্ত্রণপত্র শিরীন শারমিন চৌধুরীর কাছে পৌঁছে দেন। ২ থেকে ৬ মার্চ ভারত সফর করার কথা ছিল স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর। এই সফরে ভারতের লোকসভার স্পিকারকে মুজিব শতবর্ষের অনুষ্ঠানে আনুষ্ঠানিকভাবে আমন্ত্রণ জানানোর কথা ছিল বলে সূত্র জানিয়েছে।

এই সফরে স্পিকারের সঙ্গে যাওয়ার কথা ছিল, এমন একজন বলেন, হঠাৎ তাঁদের জানানো হয়েছে ভারত সফর স্থগিত করা হয়েছে। তবে আনুষ্ঠানিক কোনো নোটিশ তখন পর্যন্ত পাননি।

By Abraham

Translate »