Advertisements

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হলেই কি নিশ্চিত মৃত্যু? বিশ্বজুড়ে এই রোগ যেভাবে ছড়িয়ে পড়ছে এবং মানুষেরা যেভাবে আতঙ্কিত হচ্ছেন তাতে এমন প্রশ্ন মনে আসাটাই স্বাভাবিক। চিকিৎসক কিংবা গবেষকরা এ বিষয়ে কী বলছেন?

গবেষকরা মনে করছিলেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত প্রতি এক হাজার জনের মধ্যে ৫ থেকে ৪০ জন রোগী মারা যেতে পারেন। তবে বর্তমানে সেই ধারণা কিছুটা বদলেছে।

Jhuki-2

বিজ্ঞানীদের ধারণা, এই ভাইরাসে আক্রান্ত হলে প্রতি এক হাজার জনের মধ্যে মাত্র ৯ জনের মৃৃত্যু নিশ্চিত হয়। অর্থাৎ মৃত্যুহার মাত্র এক শতাংশের কাছাকাছি। যদিও মৃত্যুর বিষয়টি নির্ভর করে বয়স, লিঙ্গ, স্বাস্থ্যগত অবস্থার উপর।

বেশির ভাগেরই ধারণা করোনাভাইরাসে মৃত্যুহার বের করাটা বেশ কঠিন কাজ। এমনকী সুনির্দিষ্টভাবে কতজন মারা গেলেন, তা গণনা করাও অত্যন্ত জটিল। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বেশিরভাগ আক্রান্তের সংখ্যা হিসেবের বাইরে থেকে যায়। কারণ মৃদু উপসর্গ হলে কেউই চিকিৎসকের কাছে যেতে চান না।

Jhuki-1

ইম্পেরিয়াল কলেজের এক গবেষণা বলছে, মৃদু সংক্রমণ শনাক্তের ক্ষেত্রে কিছু দেশ পারদর্শী হলেও অনেক দেশেই তেমন কোনো ব্যবস্থা নেই। সেই কারণে আক্রান্তের হিসাব রাখাটা কঠিন কাজ হয়ে দাঁড়ায়। তাই আক্রান্তের সংখ্যা ঠিকভাবে গণনা করা হলে মৃত্যুহার আরও বেশি হতো বলে মনে করছেন অনেকেই।

Jhuki-3

বিজ্ঞানীরা বলছেন, করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে বয়স্ক, অসুস্থ আর পুরুষদের মৃত্যুর আশঙ্কা বেশি। এক্ষেত্রেও চিনের পরিসংখ্যান থেকে জানা যাচ্ছে, করোনাভাইরাসে সংক্রমণের শিকার ৪৪ হাজার মানুষের মধ্যে মধ্য বয়সীদের তুলনায় বৃদ্ধদের মধ্যে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুহার ১০ গুণ বেশি। আর ৩০ বছরের কম বয়সীদের মধ্যে মৃত্যুহার সবচেয়ে কম। তবে যাদের ডায়াবেটিস, উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ বা শ্বাসকষ্ট রয়েছে তাদের মধ্যে মৃত্যুহার ৫ গুণ বেশি।

চিকিৎসকরা বলছেন, করোনাভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলেই চিকিৎসকের শরণাপন্ন হোন, সুস্থ থাকুন।

By Abraham

Translate »