Advertisements

কাস্টিং কাউচ নিয়ে চাঞ্চল্যকর তথ্য প্রকাশ করলেন বিগ বস ১৩-র প্রতিযোগী ও জনপ্রিয় টেলি অভিনেত্রী রেশমি দেশাই। টিভি সিরিয়ালে মাত্র ১৬ বছর বয়স থেকে কাজ করতে শুরু করেছিলেন রেশমি। একাধিক হিট সিরিয়ালে কাজ করেছেন রেশমি। তার বেশ বড় ফ্যান ফলোয়িং রয়েছে। উতরন সিরিয়ালে তাপ্পু চরিত্রে অভিনয় করে তিনি প্রত্যেক বাড়িতে পছন্দের চরিত্র হয়ে উঠেছিলেন। পাশাপাশি দিল সে দিল তক সিরিয়ালে অভিনয় করে ফ্যানদের মন জয় করেছিলেন রেশমি। এছাড়াও ভোজপুরীতে একাধিক সিনেমাও করেছেন তিনি। কিন্তু আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে এত বড় অভিনেত্রী হয়েও তাকে কাস্টিং কাউচের শিকার হয়েছিলেন তিনি।

পিঙ্কভিলাতে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন,‘আমার এখনও মনে রয়ে গিয়েছে যে কেউ আমাকে বলেছিল যে কাস্টিং কাউচের মধ্যে দিয়ে না গেলে আমাকে কাজ দেয়া বন্ধ করে দেয়া হবে। তার নাম ছিল সুরজ। আমি জানি না সে এখনও কোথায়। কিন্তু প্রথমবার যখন তার সঙ্গে দেখা হয় সে আমার ফিগার সম্বন্ধে জিজ্ঞাসা করেছিল। সেই সময় এর মানে কী তা আমি জানতাম না। আমি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছিলাম যে এই বিষয়ে আমি কী জানি না। তিনি আমার জীবনের প্রথম মানুষ যে আমার সুযোগ নেওয়ার চেষ্টা করেছিল।পিঙ্কভিলাতে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানিয়েছেন,‘আমার এখনও মনে রয়ে গিয়েছে যে কেউ আমাকে বলেছিল যে কাস্টিং কাউচের মধ্যে দিয়ে না গেলে আমাকে কাজ দেয়া বন্ধ করে দেয়া হবে। তার নাম ছিল সুরজ। আমি জানি না সে এখনও কোথায়। কিন্তু প্রথমবার যখন তার সঙ্গে দেখা হয় সে আমার ফিগার সম্বন্ধে জিজ্ঞাসা করেছিল। সেই সময় এর মানে কী তা আমি জানতাম না। আমি পরিষ্কার জানিয়ে দিয়েছিলাম যে এই বিষয়ে আমি কী জানি না। তিনি আমার জীবনের প্রথম মানুষ যে আমার সুযোগ নেওয়ার চেষ্টা করেছিল।

এরপর ফোন করে তাকে অডিশনের জন্য ডেকেছিল। রেশমি আরও জানান, ‘একদিন আমাকে ফোন করে অডিশনের জন্য ডেকেছিল। আমিও খুব উৎসাহিত ছিল। সেখানে পৌঁছে দেখি ওখানে আর কেউ নেই। এমনকি ক্যামেরাও ছিল না। এরপর ড্রিঙ্ক অফার করে এবং জোর করে সেটি খাওয়ার জন্য। আমি বারবার তাকে বলতে থাকি আমি এটা করতে চায় না। প্রায় আড়াই ঘণ্টা পর সেখান থেকে কোনোভাবে বেড়িয়ে মায়ের কাছে গিয়ে সমস্ত বিষয়টি জানায়।’এরপর ফোন করে তাকে অডিশনের জন্য ডেকেছিল। রেশমি আরও জানান, ‘একদিন আমাকে ফোন করে অডিশনের জন্য ডেকেছিল। আমিও খুব উৎসাহিত ছিল। সেখানে পৌঁছে দেখি ওখানে আর কেউ নেই। এমনকি ক্যামেরাও ছিল না। এরপর ড্রিঙ্ক অফার করে এবং জোর করে সেটি খাওয়ার জন্য। আমি বারবার তাকে বলতে থাকি আমি এটা করতে চায় না। প্রায় আড়াই ঘণ্টা পর সেখান থেকে কোনোভাবে বেড়িয়ে মায়ের কাছে গিয়ে সমস্ত বিষয়টি জানায়।’

রেশমির মায়ের ইচ্ছা ছিল না যে সে এই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করুক। এরপর সেই লোকটিকে ফোন করেন রেশমির মা এবং রেস্তোরাঁয় তাকে ডেকে পাঠান দেখা করার জন্য। সেখানে পৌঁছে সকলের সামনে তাকে তাপ্পড় মারে রেশমির মা। তিনি বলেন, ‘মেরি মা তাকে বলে আমার মেয়ের সঙ্গে এরকম করার কথা যেন ভুলেও না ভাবেন। এবারের মতো ছেড়ে দিচ্ছি।’রেশমির মায়ের ইচ্ছা ছিল না যে সে এই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করুক। এরপর সেই লোকটিকে ফোন করেন রেশমির মা এবং রেস্তোরাঁয় তাকে ডেকে পাঠান দেখা করার জন্য। সেখানে পৌঁছে সকলের সামনে তাকে তাপ্পড় মারে রেশমির মা। তিনি বলেন, ‘মেরি মা তাকে বলে আমার মেয়ের সঙ্গে এরকম করার কথা যেন ভুলেও না ভাবেন। এবারের মতো ছেড়ে দিচ্ছি।’

By Abraham

Translate »